“দ্রৌপদী দ্যা হরর নাইট”-এর গান প্রকাশ ও সাংবাদিক সম্মেলন

“দ্রৌপদী দ্যা হরর নাইট”-এর গান প্রকাশ ও সাংবাদিক সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিনিধি:মঙ্গলবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে নতুন বাংলা ছবি “দ্রৌপদী দ্যা হরর নাইট”-এর গান প্রকাশ ও সাংবাদিক সম্মেলন হয়ে গেল।

ছবির সংক্ষিপ্ত কাহিনি এরকম-একদল শহুরে কলেজ পড়ুয়া পাহাড়ি অঞ্চলে প্রমোদ বিলাস ভ্রমণে যায়। সেখানে একের পর এক ঘটনা-দুর্ঘটনা ঘটতে থাকে।পুলিশ প্রশাসন ও নিরুপায়।পাহাড়ি অঞ্চলে এক অশীতিপর বৃদ্ধার থেকে জানা যায় এর আসল রহস্য, যা লোকমুখে “দ্রৌপদী” রহস্য নামেই পরিচিত।
আজ থেকে প্রায় ৭৫ বছর আগে বর্ধীন্ষ্ণু শিল্পপতি পরেশবাবুর ব্যাবসায়ীক বন্ধু , সঙ্গী , বয়সে কনিষ্ঠ ডেভিন সাহেবের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বশতঃ একদিন আমোদ প্রমোদ এর জন্য পাহাড়ের এক মনোরম নাচমহলে যান। সেখানে এক নৃত্য পটীয়সীর প্রেমে উত্তাল হয়ে ওঠে সাহেবের মন। নৃত্যরত ঘোমটার আড়ালে কে?তা দেখার জন্য আকুল হয়ে ওঠেন সাহেব। একসময় সাহেব সেই নর্তকীর প্রেমের পরশ পান। প্রেম ঘনীভূত হয়। এক ঝড় জলের রাতে একাত্ম হন সাহেব ও নর্তকী। এ খবর পৌঁছে যায় সাহেবের স্ত্রী দ্রৌপদী র কাছে। দ্রৌপদী র মনে আগুন জ্বলে ওঠে। স্ত্রী র কাছে বারবার বিব্রত হওয়ার পর সাহেব স্বীকার করে নেয় যে সে নর্তকী কে ভালোবাসে। সেই অবস্থায় দ্রৌপদী স্বামী কে কাছে পাওয়ার জন্য এক তান্ত্রিক এর সাহায্যে কালাযাদুর আশ্রয় নেয়। কালাযাদু তান্ত্রিক এর এক মন্ত্রপূত ফুলের মাধ্যমে স্বামী কে ফিরে পাওয়ার আশ্বাস পান দ্রৌপদী। তবে শর্তসাপেক্ষে। শর্তটি হলো , মন্ত্রপূত ফুলফুলটি কে হাতছাড়া করা যাবে না।দ্রৌপদী কি স্বামী কে ফিরিয়ে আনতে পারবে?এই অবস্থায় ছাত্র ছাত্রীরা কি নিরাপদে শহরে ফিরে আসতে পারবে?প্রচলিত লোককথা দ্রৌপদী রহস্য’ই বা কি?তা জানতে
দেখতেই হবে “দ্রৌপদী দ্য হরর নাইট”।

অভিনয়ে আছেন
ঋত্বিকা সেন, অভীক ভকত,মুস্তাক খান(মুম্বাই),বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, স্বান্তনা বসু, রাজু মজুমদার, ধর্মেন্দ্রর যাদব , সুকুমার দাস, জয় গাঙ্গুলী, প্রিয়াঙ্কা বিশ্বাস, মৃন্ময় রায়, অর্পিতা বসাক,গার্গী ঘোষ, অসীম কুরেশি,গনেশ ঘোষ, চয়ন চক্রবর্তী, কেশব কর্মকার, প্রিয়া পাল, তিতলি রায়, মুকুল ব্যানার্জী, বিপুল বাউড়ি, অনন্যা মাজী,দেবদুলাল বন্দোপাধ্যায়, রাজ দাস, শশী রানা, কূহেলী বসু, প্রদীপ পাল, খুশী দত্ত, কমল মাজী, গোগো প্রীতম , নাড়ুগোপাল মণ্ডল ও অন্যান্যরা। ছবির কাহিনী,চিত্রনাট্য ও সংলাপ অভীক ভকতের।

চিত্রগ্রহণ করেছেন আনমোল এইচ সা ( মুম্বাই ) ।সম্পাদনায় মৈনাক পাল।ছবিতে মোট তিনটি ভিন্ন স্বাদের গান আছে।সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন অভীক ভকত।গান লিখেছেন অভীক ভকত ও সুদীপ কুমার ঘোষ।নেপথ্য কণ্ঠে অন্বেষা দত্ত গুপ্ত, অভীক ভকত , পিঙ্কী রায় ও অন্যান্যরা। নৃত্য পরিচালনায় মৈনাক পাল ও মেঘনা দাস।ছবিটির পরিচালনা ও প্রযোজনা সুকুমার দাসের।প্রচার পরিকল্পনা শুভঙ্কর ঘোষ।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *