এক নিরীহ নারীর করুণ কাহিনী

এক নিরীহ নারীর করুণ কাহিনী

পিয়াসী মল্লিক

ফিরোজা বা মমতাজ তার নাম
অভিজাত এলাকায় নয়তো ধাম
গাছগাছালি ঘেরা বাড়ি তার প্রত্যন্ত গাঁয়ে,
লেখাপড়া শিখে বড় হওয়া অনেক কষ্ট সয়ে।
লেখাপড়া চলছিল,জন্ডিসে পিতার অকাল প্রয়াণ।
ভাইবোনদের পড়াশোনা চালাতে চাকরি পেতে হয়রান।
বাড়িতে দারিদ্র, মায়ের করুণ মুখ
সংসারে মায়ের সারাজীবন পরিশ্রম,পায়নি বিশ্রাম সুখ
বহুদিন পরে মেয়েটি পেল চাকরি।
ভাইবোনেদের খরচ চালানো খুবই দরকারি।
তারপর একদিন বিয়ে হলো সাধারণ পরিবারে।
এই রমণীকে চাকরি করতে হয় নানা দরকারে
সন্তানের অসুস্থতা,পড়াশুনা এইসব কারণে
কলকাতায় ফ্ল্যাট দরকার নানা প্রয়োজনে
প্রোমোটারের কথামতো জমা দিয়েছে টাকা।
দশ বছর পার হয়ে গেছে,কিন্তু কোথায় কথা রাখা?
প্রোমোটার দেয়নি ফ্ল্যাট,ফেরত দেয়নি টাকা
নিরীহ রমণীকে প্রোমোটার দিচ্ছে ধোঁকা
দুশ্চিন্তায় নিরীহ নারী ভালো থাকতে পারে কি?
প্রোমোটারের ধোঁকায় নিরীহ রমণী অসুস্থ ও দুঃখী।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *