Anando Sangbad Live

গোবরডাঙায় নাট্য উৎসব

ইন্দ্রজিৎ আইচ:দশটি নাট্যদলের উদ্যোগে প্রথম পর্যায় গোবরডাঙায় অনুষ্ঠিত হলো “সমস্বর শিল্পী সমন্বয় “এর নাটকের উৎসব ।দশটি নাটকের দলের কলাকুশলীদের উপস্থিতি এবং এলাকার মানুষের সহযোগিতায় প্রায় এক শত মানুষ পদযাত্রাতে অংশ গ্রহণ করেন।প্রবাদ প্রতিম শিল্পী শ্রী সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং তরুণ প্রতিভাবান নাট্যকর্মী শ্রী প্রসেনজিত বর্ধনের অকাল মৃত্যুতে মৌন মিছিলের মধ্য দিয়ে এই সমস্ত নাট্যকর্মী তাদের শোক প্রকাশ করেন এবং উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতেই এক মিনিট নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে তাদের আত্মার শান্তি কামনা করা হয়।অনুষ্ঠানে প্রদীপ জ্বালিয়ে উদ্বোধন করেন দশটি নাট্যদলের মহিলা শিল্পীরা।শ্রীমতি কাকলি সেনগুপ্ত, দীপান্বিতা বনিক দাস,সুস্মিতা ভট্টাচার্য, রমা পাল,মৌসুমী মন্ডল, অনিমা দাস,রূপা মজুমদার, সঙ্গীতা চৌধুরী, অর্পিতা শর্মা এবং বেবী সেনগুপ্ত। প্রথম পর্বের অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন অঙ্গন বেলঘরিয়া দলের পরিচালক শ্রী অভি সেনগুপ্ত। একই সাথে তিন জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে বরন করে নেওয়া হয় ,গোবরডাঙা শিল্পায়নের কর্ণধারএবং প:ব:নাট্য আকাদেমির সদস্য শ্রী আশিষ চট্টোপাধ্যায়, গোবরডাঙা রূপান্তরের প্রাণপুরুষ এবং প্রবীণ অভিনতা শ্রী শ্যামল দত্ত এবং এই অনুষ্ঠানের মুখ্য অতিথি ভাবনা পত্রিকার সম্পাদক শ্রী অভিক ভট্টাচার্যকে। আশিষ চট্টোপাধ্যায়কে বরণ করে নেন ইছাপুর আলেয়া এবং বেলঘরিয়া এথিক নাট্যদলের পরিচালক শ্রী শুভেন্দু মজুমদার এবং দেবাশিস সেনগুপ্ত।শ্রী শ্যামল দত্ত মহাশয়কে বরণ করে নেন বিভাব নাট্য আকাদেমি এবং বরাহনগর এবং নাট্যদলের পরিচালক শ্রী সঞ্জয় সেনগুপ্ত এবং সমিত দাস।মুখ্য অতিথি শ্রী অভিক ভট্টাচার্যকে বরণ করে নেন অঙ্গন বেলঘরিয়া নাট্যদলের পরিচালক শ্রী অভি সেনগুপ্ত।অতিথি প্রত্যেকে তাদের বক্তব্যে অনুষ্ঠানের সর্বাঙ্গীন সাফল্য কামনা করেন।সমস্বর শিল্পী সমন্বয় এর পক্ষে আহ্বায়ক ইউনিটি মালঞ্চ নাট্যদলের পরিচালক শ্রী দেবাশিস সরকার তাদের সংগঠনের উদ্দেশ্য সকলের কাছে ব্যক্ত করেন।দ্বিতীয় পর্বের সমস্ত অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন গোবরডাঙা নকসা দলের মূল অভিনেত্রী শ্রীমতি দীপান্বিতা বনিক দাস।

প্রথম দিন দুটি নাটক মঞ্চস্থ হয় ।যুগের যাত্রী চন্দননগর তাদের নাটক “চাঁদ সওদাগর ” এবং ইউনিটি মালঞ্চ হালিশহর তাদের নাটক “বিশ্বাস ” মঞ্চস্থ করেন ।দ্বিতীয় দিন মঞ্চস্থ করেন বিভাগ নাট্য আকাদেমি তাদের নাটক “এলাটিং বেলাটিং”এবং আলেয়া ইছাপুর তাদের নাটক “ইচ্ছে ডানা”তৃতীয় দিন মঞ্চস্থ করেন বরাহনগর এবং নাট্যদলের নাটক “অমাবস্যায় চাঁদের আলো “এবং গোবরডাঙা নকসার নাটক “সুভা “চতুর্থ দিন মঞ্চস্থ করেন আরোহী ব্যান্ডেল এর নাটক “যতীন বাবু শুনছেন “এবং শ্যামনগর নাট্যবিতান এর নাটক “ইনসানিয়াত”পঞ্চম দিন বেলঘরিয়া এথিক এর নাটক “লাইল্যাক “এবং উৎসবের শেষ নাটক মঞ্চস্থ করেন অঙ্গন বেলঘরিয়া তাদের নাটক “টম এন্ড জেরি “এলাকার মানুষ সমস্ত সুরক্ষা বিধি মেনে পাঁচ দিনের এই উৎসবে অংশগ্রহণ করেছেন এবং উপভোগ করেছেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *