google-site-verification=3aWTtnJLDmziNXnTRHYjTuuhcCjdWHLf0r3nb02M4_Q আবৃত্তিকার থেকে ছবি আঁকিয়ে, অভিনেতা থেকে পত্রিকা সম্পাদক নানা ভূমিকায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবার প্রকাশ পেল ক্যালেন্ডারে   google-site-verification=3aWTtnJLDmziNXnTRHYjTuuhcCjdWHLf0r3nb02M4_Q
Anando Sangbad Live

আবৃত্তিকার থেকে ছবি আঁকিয়ে, অভিনেতা থেকে পত্রিকা সম্পাদক নানা ভূমিকায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবার প্রকাশ পেল ক্যালেন্ডারে  

নিজস্ব প্রতিনিধি:অপু,ফেলু মিত্তির,উদয়ন পন্ডিত,ময়ূরবাহন,দেবদাস,
ক্ষীদদা পর্দায় চরিত্রের বদল হলেও চরিত্র গুলোর রূপায়ণে ছিলেন একজনই, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়।জীবন জুড়ে নানা রকমের কাজ করে গেছেন।চলচ্চিত্রে রূপদান থেকে ছবি আঁকা,পত্রিকা সম্পাদনা করা,গল্প-কবিতা লেখা,কবিতা আবৃত্তি করা সব মিলিয়ে সৌমিত্র মানেই ছিল চমক,একরাশ মুগ্ধতা।যে কাজই করে থাকুন দক্ষতার সাথে করেছেন।সম্প্রতি প্রয়াত হয়েছেন কিংবদন্তি এই বর্ষিয়ান শিল্পী।তাঁর স্মরণে “অপুর পাঁচালী” শীর্ষক একটি দেওয়াল ক্যালেন্ডার প্রকাশিত হল  ১৩ই জানুয়ারি, স্পাইসেস এন্ড সসেস ( আই.সি.সি.আর আউটলেট) । সুরজিৎ কালা,শ্যাম সুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স (রূপক সাহা,ডাইরেক্টর),সুদীপ্ত চন্দ এর যৌথ উদ্যোগে,দেবাশিস মুখোপাধ্যায় এর বিশেয সহযোগিতায় প্রকাশিত হল এই ক্যালেন্ডার।উপস্থিত ছিলেন সৌগত চট্টোপাধ্যায়, দেবজ্যোতি মিশ্র,রূপক সাহা,সুরজিৎ কালা,দেবজিত্ বন্দোপাধ্যায়, ঋদ্ধি বন্দোপাধ্যায়,সুজয় প্রসাদ চট্টোপাধ্যায়,দেবাশিস মুখোপাধ্যায়,গৌতম দে (আঞ্চলিক অধিকর্তা,আই.সি.সি.আর, কলকাতা) প্রমুখ।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের নানা কাজের অলিগলি ঘুরে এ ক্যালেন্ডার এক সংগ্রহ যোগ্য হয়ে উঠবে তাঁর গুণমুগ্ধদের কাছে তা বলাই যায়।সত্যজিৎ এর সৌমিত্র থেকে মৃণাল সেন,তপন সিংহ,অজয় কর,অসিত সেন দের হাত ধরে পরবর্তী প্রজন্মের সন্দীপ রায়, অতনু ঘোষ,অনীক দত্ত, শিবপ্রসাদ-নন্দিতা জুটির কাজ, আর সব কাজেই নতুন ভাবে মুগ্ধ করেছেন সৌমিত্র।ক্যালেন্ডার এ রয়েছে সিনেমার পোস্টার,বুকলেট এর ছবি।রবীন্দ্র কবিতার আবৃত্তি থেকে ছবির গানের রেকর্ডের কভার,কবিতার বই লেখা থেকে এক্ষণ পত্রিকা সম্পাদনা করা থাকছে তার নমুনাও।খুব ভালো ছবি আঁকতেন সৌমিত্র।ক্যালেন্ডারের একটা পাতা জুড়ে থাকছে তাঁর আঁকা আত্মপ্রতিকৃতি থেকে শুরু নানা রকমের ছবি।সব মিলিয়ে এ ক্যালেন্ডার নানা ধারায় সৌমিত্রকে তুলে ধরেছে।তাই সংগ্রহে রাখার মতোই এই ক্যালেন্ডার।সৌগত চট্টোপাধ্যায় বললেন,” আমার বাবাকে নিয়ে এই ক্যালেন্ডার প্রকাশিত হওয়ায় আমি খুবই খুশি।বাবার কাজ এই ভাবেই থেকে যাবে,মানুষকে আনন্দ দেবে।উদ্যোগতাদের অনেক সাধুবাদ জানাই।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *