৩৪ বছরে ‘অঙ্গন বেলঘড়িয়া’

ইন্দ্রজিৎ আইচ:অঙ্গন বেলঘড়িয়া নাট্যদল ৩৩
থেকে ৩৪ বছরে পদার্পন করলো।এই দল পশ্চিমবঙ্গের একটি জনপ্রিয় নাটকের দল। সারা ভারতবর্ষের নানা প্রান্তে ও আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশে এই দল তাদের থিয়েটার মঞ্চস্থ করেছে।তারা এটা বিশ্বাস করে নাটক নিছক বিনোদন নয়, বৃহত্তর রাজনৈতিক ও সামাজিক নাট্য আন্দোলনের অংশ হলো থিয়েটার।তাই তারা শিল্প ও শিল্পীর মধ্যে এক সুসম্পর্ক বজায় রাখতে চায়। অঙ্গন বেলঘড়িয়া তার ৩৩ বছরের ধারাবাহিক নাট্য চর্চায় তার প্রমান রেখেছে একের পর এক বলিষ্ঠ নাট্য প্রযোজনায়।
আমরা সকলেই জানি করোনা নামক অতিমারী এই রোগের জন্য কলকাতার সব হল গুলো বহুদিন হল বন্ধ আছে। তাই অঙ্গন বেলঘড়িয়া তাদের ৩৩ পেরিয়ে ৩৪ বছর উদযাপন করলো ফেসবুক লাইভ এর মাধ্যমে। সম্প্রতি দক্ষিনেশ্বর কালি মন্দিরের সামনে মোট ৫০ জন দুস্থ গরিব মানুষের হাতে খাবার ও মাস্ক তুলে দেন অঙ্গন বেলঘড়িয়া নাট্য দলের কর্ণধার অভি সেনগুপ্ত ও এই নাট্য দলের সকল অভিনেতা-অভিনেত্রী ও নাট্যকর্মীরা।
সেই দিন বিকেলে অঙ্গনের মহোলা কক্ষে ছিল স্বর্গীয় সুমতি সেনগুপ্ত স্মৃতি সম্মান প্রদান অনুষ্ঠান ও নাট্য সেমিনার।উদ্ভোধন অনুষ্ঠানে সংগীত ও কবিতা পাঠ করে শোনান অঙ্গনের শিল্পীরা। স্বর্গীয় সুমতি সেনগুপ্ত স্মৃতি সম্মান প্রদান করা হয় নাট্য গবেষক আশিস গোস্বামী কে।তার হাতে এই সন্মান তুলে দেন নাট্য পরিচালক ও অভিনেতা মুরারী মুখোপাধ্যায়
এছাড়া দলের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয় মুরারী মুখোপাধ্যায় ও নাট্য ব্যক্তিত্ব দেবাশীষ সেনগুপ্ত কে। তারা সকলেই তাদের ভাষণে এই নাট্যদলের কর্মকান্ড নিয়ে আলোচনা করেন।
এরপর ছিল এক বিশেষ নাট্য সেমিনার। বিষয় ছিল “থিয়েটারের ভবিষ্যত”। এই আলোচনায় অংশ নেয় নীলাভ চট্টোপাধ্যায়, দেবাশীষ সেনগুপ্ত, গৌতম চক্রবর্তী, মুরারী মুখোপাধ্যায়, নাট্যকার ও দলের সম্পাদক বেবি সেনগুপ্ত ও তপন বিশ্বাস। আলোচনায় থিয়েটারে র ভবিষ্যতের ইতিবাচক দিকটা যেমন উঠে এসেছে তেমন কেউ বলেছেন বর্তমান সময়ে থিয়েটারের ডিজিটাল নির্ভরতার কথা। সব মিলিয়ে এই করোনা আবহে থিয়েটার হয়ে উঠেছে অন লাইন ফেসবুক মাধ্যম। কবে হল খুলবে আমরা কেউ জানি না।তবে কি নাট্য চর্চা বন্ধ থাকবে। না, অন লাইনএ চলবে এই থিয়েটার চর্চা, যেমন অঙ্গন বেলঘড়িয়া তাদের মতন করে দুরত্ব বিধি মেনে ও সব রকম সাবধানতা অবলম্বন করে ৩৪ বছরের নাট্য পরিক্রমায় অংশ নিল এই দল।শুভেচ্ছা বার্তা দিয়েছেন নাট্যকার,অভিনেতা, পরিচালক ও মন্ত্রী ব্রাত্য বসু এবং ভারত-বাংলাদেশের বহু বহু নাট্যদল ।সেদিন সমগ্র অনুষ্ঠানটি ফেসবুক লাইভ এর কাজটা করেছিলেন অঙ্গনের নাট্য কর্মী সায়ন সেনগুপ্ত।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *