সানফ্রান্সিসকোতে দেবীর বোধনে “বোধায়ন”

আনন্দ সংবাদ লাইভ:করোনা প্রকোপে নতজানু বিশ্বম। মহামারী নয় এ যেন এক অসুরিক শক্তি।
শুধু রোগজ্বালা, লকডাউন, বদ্ধ জীবন নয়,২০২০ চতুর্দিক বিষাক্ত গ্লোবাল ওয়ার্মিং গ্রাস করছে বিশ্বের সমতুল্য কে আমাজনের সবুজ বুকে অস্ট্রেলিয়ার,ক্যালিফোর্নিয়ায় সাজানোর দিক দিগন্তের দাবানল ধূদ্ধূমার বাঁধিয়েছে। জেগে উঠেছে আগ্নেয়গিরিদের ঘুম। সাইক্লোন,টর্নেডো,হারিকেন বিলুপ্ত জনবসতি কোটি কোটি মানুষের জীবন বিপদে।বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশের মধ্যে দ্বন্ধ বেঁধেছে -চোখ রাঙাচ্ছে একে অপরের সামরিক শক্তি মহাযুদ্ধ লাগলো বলে। চারিদিকে জাতপাতের বিরোধ, ধার্মিক,সামাজিক অবক্ষয় প্রকট হয়েছে।দাঁতে দাঁত চেপে কোন রকমে বেঁচে আছে গোটা দুনিয়া।এরই মাঝে এসে পড়েছে দুর্গা, পুজো বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব এবারে মহিষাসুর মদিনী আরাধনা কিভাবে হবে সেই নিয়ে বাঙালি সংশয় – কেউবা করেছেন এই পুজো কেউ বা পুজো করেছেন নানান রকম বিধি-নিষেধ মেনে।কেউ আবার এবারের উৎসব স্থগিত করেছেন সামাজিক সুরক্ষা কথা ভেবে।

সানফ্রান্সিসকোর বে এরিয়া ক্রিয়েটিভ ডান্স একাডেমি দেবীর আরাধনা করতে চলেছে একেবারে নতুন ভূমিকায়।এই লকডাউন এবং মহামারীর মধ্যে এই প্রচেষ্টা শুধু অনন্য নয়, একেবারে অতুলনীয় এবং অবিস্মরণীয়। দেবীর আরাধনায় ওনারা অর্পণ করেছেন বোধায়ন the awakening – আবেগ ময়, সমধূর,আন্তরিক এক নিত্য নাট্য যা প্রকাশ হতে চলেছে সবকটি অনলাইন স্ট্রিমিং প্লাটফর্মে। এই অনুষ্ঠানের কর্ণধার বে এরিয়া বাসী শ্রীমতি ডালিয়া সেন,সংগীত পরিচালনা করেছেন শুভেন খাটুয়া, নাট্য রচনা এবং নির্দেশনা করেছেন কুশল চ্যাটার্জী ।নানান ভূমিকায় যুক্ত আছেন বে এরিয়া নিবাসী ৮০ জনের বেশি কলাকুশলীরা এবং শিল্পী।

অনুষ্ঠানের নির্দেশক ডালিয়া সেন জানালেন” পৃথিবীর বড় বিপদ, আমাদের চারপাশে বিশ্বজুড়ে যা ঘটছে তাই হলো অসুর। আমাদের দেবীর কাছে প্রার্থনা -দুর্গতিনাশিনী যেন এই মহা বিপদ নাশ করে, আমাদের রক্ষা করেন।এই ভাবনা নিয়ে আমাদের প্রয়াসের নাম হলো বোধায়ন। এই অনুষ্ঠান মাত্র ২৫-৩০ মিনিটের হলোও”এর রুপায়ন ব্যাপক কর্মকাণ্ড।কাজটা আরও কঠিন কারণ আমাদের রিহার্সাল, পরিকল্পনা,শুটিং,রেকর্ডিং, সব হয়েছে সোশ্যাল ডিসটেন্স নিয়ম মেনে।সাবধানতা অবলম্বন করতে আমরা কোনো গাফিলতি করিনি । আমাদের পাশে কাজে সাহায্য করতে দাঁড়িয়েছে অনেক বন্ধু-বান্ধব শিল্প প্রেমী কিছু কলকাতার কলাকুশলী আমাদের অনেক সাহায্য করেছে। এই বিরাট পরিবারের মুখ্য ভূমিকায় থাকতে পেরে নিজেকে কৃতজ্ঞ মনে করছি।”বোধায়ন “কে পূর্ণাঙ্গ রুপ দিতে যারা গত কয়েক মাস অক্লান্ত পরিশ্রম করলো, তাদের কাছে চির ঋণী হয়ে রইলাম। বিশ্বজুড়ে বাঙালি এই অনুষ্ঠান দেখলে খুব খুশি হব।


এই অনুষ্ঠান বে এরিয়া ক্রিয়েটিভ ডান্স একাডেমির ইউটিউব এবং ফেসবুক পেজে আগামী ৩ অক্টোবর সকাল ৮:৩০ থেকে ( ভারতীয় সময় ) থেকে দেখা যাবে সমগ্র বিশ্বে ।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *