সাত পাকের বন্ধনে আবদ্ধ সুকন্যা-অরুণাভ

সাত পাকের বন্ধনে আবদ্ধ সুকন্যা-অরুণাভ

( বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন টালিগঞ্জের ছোটপর্দার অভিনেত্রী সুকন্যা দত্ত। পাত্র গায়ক তথা সংগীত পরিচালক অরুণাভ রায়। সুকন্যা-অরুণাভর বিয়েতে উপস্থিত থেকে সেই অভিজ্ঞতাই তুলে ধরেছেন সোমনাথ লাহা।)

কোভিড নামক অতিমারীর কবল থেকে বেরিয়ে এসে তখন স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে জনজীবন, এসেছে ভ্যাকসিনের সোনালী আলোক রেখা। এমন সময় ভেসে উঠলো প্রজাপতি নির্বন্ধ। টলিপাড়ার আনাচে কানাচে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে সানাইয়ের সুর। মাঘের হিমেল পরশকে গায়ে মেখে গত ১৮ জানুয়ারি সাত পাকে বাঁধা পড়লেন টলিউডের ছোটপর্দায় অন্যতম অভিনেত্রী সুকন্যা দত্ত। পাত্র গায়ক তথা সংগীত পরিচালক অরুণাভ রায়। চার হাত একসূত্রে বাঁধা পড়ার এই বিবাহ বাসরটি বসেছিল শহর তিলোত্তমার এক জনপ্রিয় অ্যামিউজমেন্ট পার্কে( নিক্কো পার্ক)-র অন্যতম অংশ Wet-o-Wild এ। রীতিমতো জমকালো ও আড়ম্বরপূর্ণ এই বিবাহ বাসরটি ছিল সৃজনশীলতায় গাঁথা। বিয়ের অনুষ্ঠানে ছিল মিউজিক্যাল ইভেন্টস। গান গেয়ে যেটিকে মাতিয়ে রাখেন রাহুল দেব। তবে বিয়ের অন্যতম আকর্ষণ ছিল এর থিম। প্রেম ও ভালোবাসার চিরায়ত প্রতীক ‘রাধা-কৃষ্ণ’ কে অনুসরণ করে‌ই মালাবদল সম্পন্ন হয় সুকন্যা ও অরুণাভর। বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের বেশে সুকন্যার সাজসজ্জা ছিল দেখার মতো। গাঢ় গোলাপি রঙের বেনারসি পরিহিত সুকন্যার কপালে টিপ সহ চন্দনের ফোঁটার কারুকাজ, দুহাতে মেহন্দির সুষমায় শোভিত এবং অলঙ্কারখচিত সুকন্যা কনেরূপে অনন্যা হয়ে উঠেছিল। অন্যদিকে বরবেশী অরুণাভর পরণে ছিল হালকা গোলাপি রঙের কারুকাজ করা শের‌ওয়ানি। সুকন্যা-অরুণাভর এই বিয়েতে নিমন্ত্রিত ছিলেন টলিপাড়ার পরিচালক-অভিনেতাদের অনেকেই। সেই তালিকায় তেমন ছিলেন পরিচালক অনিন্দ্য সরকার, শমীক বসুর মতো মানুষ, তেমনই অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মধ্যে ছিলেন তনুশ্রী ভট্টাচার্য বসু, রাত্রি ঘটক, প্রীতম বসু, শ্রেয়শ্রী রায় সহ বহু বিশিষ্ট জন। বিয়ের মেনুও ছিল ভেজ-ননভেজ আইটেমের পাশাপাশি চাইনিজ, সাউথ ইন্ডিয়ান পদে ঠাসা। ছিল খাবারের জন্য আলাদা আলাদা কাউন্টার। ননভেজ পদে তেমন ছিল মটন রেজালা, মটন দোপেঁয়াজা,মটন লোগান জুস, তেমনই চিকেন মাঞ্চুরিয়ান, গার্লিক চিকেন,চিকেন ঝাল ফেরেজির মতো পদ। এছাড়াও মাছের পদে ছিল ভেটকি পাতুরি, পমফ্রেট ফ্রাই ও চিংড়ির মালাইকারি। সঙ্গে ছিল ভাত, জিরা রাইস, বাসন্তী পোলাও, ভেজা বিরিয়ানি। ডেজার্টে ছিল পুডিং,ভ্যানিলা আইসক্রিম,কুলফি। মিষ্টির মধ্যে ছিল কেশর জিলেপি, বড় রাজভোগ, চকোলেট সন্দেশ,গুলাব জামুন, গাজরের হালুয়ার মতো পদ। এছাড়াও ছিল নানারকম কাবাব সহ অন্যান্য অনেক পদ।

বিয়ের বিভিন্ন মুহূর্ত

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *