জুনিয়র আর্টিস্ট থেকেও অভিনেতা হওয়া যায়, অভিনেতা হওয়ার লড়াইয়ে মূল্যবোধের গুরুত্বপূর্ণ দিক জানাল দেবাশীষ রায়

0
29

নিজস্ব প্রতিনিধি:জুনিয়র আর্টিস্ট থেকে জীবন রগড়ে অভিনয়ের স্বপ্ন বুকে নিয়ে পথচলা শুরু করেছিল রত্নাকর নর্থ পয়েন্টের দেবাশীষ রায়। স্বপ্ন অভিনেতা হওয়ার, রুপোলী পর্দায় নিজেকে তুলে ধরার। অপেক্ষা ছিল ডি-ফোকাস থেকে ক্লোজ শটে স্ক্রিনে আসার। সময়ের চক্রে আজ সেই স্বপ্ন পূরণ করতে পেরেছে সে। শুধু বাংলা চলচ্চিত্র নয়, বলিউড থেকে নিউইয়র্ক ফিল্ম অ্যাকাডেমিতে স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবিতেও অভিনয়ের সুযোগ মিলেছে।

রবীন্দ্রভারতীতে ইংরেজীতে স্নাতকোত্তরের পর নাট্যশিক্ষা শুরু হয় দেবশঙ্কর হালদার, গৌতম হালদারের কাছে। ইংরেজী ভাষায় ম্যাকবেথ সহ একাধিক নাটক মঞ্চস্থ এবং বিদেশী ভাষার উচ্চারণ শিখতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক দেবাদিত্য মুখোপাধ্যায়ের কথাও বিশেষভাবে উল্লেখ করে দেবাশীষ। সে জানায়, “অভিনয় করেছি অনেক বিনা পারিশ্রমিকে, কিন্তু জীবনের প্রথম উপার্জন ছিল একশ টাকা যা আজও আমার অস্তিত্বকে অহংকারে পরিণত হতে দেয়নি।

আজ হয়ত কিছু পরিচিতি বেড়েছে, কাজ পাচ্ছি বিভিন্ন সংস্থা থেকে। কিন্তু ওই একশ টাকা পাওয়ার পর যা খুশি হয়েছিলাম তার অনুভূতি আলাদা”। তবে এই উত্থানের পেছনে যেমন জেদ আর নিরলস পরিশ্রম ছিল তেমনই সোশ্যাল মিডিয়ায় তার অভিনয়ের ঝলক নজর কাড়ে বিভিন্ন অভিনেতা-অভিনেত্রী সহ পরিচালক এবং প্রযোজকদের। লকডাউনের সময়ে বাংলা-হিন্দি এবং ইংরেজি তিন ভাষাতেই সাবলীল অভিনয়ের ভিডিও নেটদুনিয়ায় অত্যন্ত পরিচিতি বাড়িয়েছে তার।

সেই পরিচিতিই একাধিক কাজের সুযোগ এনেছে দেবাশীষের হাতে। পরিচালক বিশ্বরূপ বিশ্বাসের ‘বাচ্চা শ্বশুর’ ছবিতেও জুনিয়র আর্টিস্টের কাজের সুযোগ আসে। ভাগ্যচক্রে সেখানে ক্যামেরার মূল ফোকাসে এসে প্রায় দু’ মিনিটের তার অভিনয় নজর কেড়েছিল সবার। এরপর ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি, দ্বিতীয় পুরুষ, সুইজারল্যান্ড, বণ্য প্রেমের গল্প, মাফিয়া সহ বেশ কিছু ছবি এবং ওয়েব সিরিজে তার অভিনয় উল্লেখযোগ্য।

এছাড়াও সম্প্রতি পরিচালক হিন্দোল চক্রবর্তীর হরেকৃষ্ণ শর্টফিল্মে(কান্স ওয়ার্ল্ড ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ফাইনালিস্ট নমিনেটেড) তার অভিনয় প্রশংসিত। পাশাপাশি বলি অভিনেত্রী মল্লিকা শেরওয়াতের সাথে নাকাব সিরিজে স্ক্রিন শেয়ারের সুযোগ মিলেছে তার। সেইসাথে বলি অভিনেতা বিজেন্দ্র কালার সাথে মাস্ক নামক ছবিতেও দেখা মিলবে দেবাশীষের এমনটাই জানিয়েছে সে। এছাড়াও ধানবাদ, রিট্রিবিউশন ছবিগুলি মুক্তির অপেক্ষায়। মূলত জুনিয়র আর্টিস্ট থেকেও যে একজন অভিনেতা হওয়া যায় সেই বিষয়ক একটা নমুনা সেট করেছে দেবাশীষ। তাই নতুন স্ট্রাগলারদের কাছে এই ঘটনা সত্যিই অনেক কাছের।

সম্প্রতি টলিউড এবং বলিউডে বেশ কিছু কাজের ব্যস্ততা রয়েছে তার। এই মুহূর্তে পরিচালক অনীক দত্তের ‘অপরাজিত’ ছবিতে প্রখ্যাত সিনেমাটোগ্রাফার সুব্রত মিত্রের ভূমিকায় দেখা যাবে তাকে। ছবি সম্পর্কিত দেবাশীষ জানায়, “প্রথম যখন আমায় অনীক স্যার বলেন বিষয়টা শুনে মনের মধ্যে অনেক কিছু ক্যালকুলেশন করেছিলাম। খুব গুরুত্বপূর্ণ এবং বাংলা ও বাঙালির সিনেমা জগতের এক পরিচিত মুখের নাম ভূমিকায় স্ক্রিনে আসাটা সত্যিই চ্যালেঞ্জের। যাইহোক সেটা গ্রহণ করেছি। আপাতত আবীর চট্টোপাধ্যায় দা এবং অনীক স্যারের সাথে ছবি সম্পর্কিত কিছু রিহার্সাল এবং লুক টেস্ট চলছে। বাকি সব ক্রমশঃ প্রকাশ্য…

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here