Home Blog

সত্য ঘটনা অবলম্বনে ওয়েব সিরিজ ‘বিপিও’-র শুটিং চলছে

0

✍️By Ramiz Ali Ahmed
নতুন হিন্দি ওয়েব সিরিজ ‘বিপিও'(BPO)-র শুটিং চলছে।ওয়েব সিরিজটির পরিচালনা করছেন ঋক।দিল্লীর নয়ডার একটি সত্যি ঘটনা অবলম্বনে ওয়েব সিরিজটি নির্মিত হচ্ছে।চিত্রনাট্য লিখেছেন পরিচালক ঋক।

ওয়েব সিরিজের কাহিনি বিপিও তে কাজ করা একটি মেয়েকে নিয়ে,যে এমপ্লয়ী অফ দ্য ইয়ার হয়,কিন্তু সেই মেয়েটি হঠাৎ নিখোঁজ হয়ে যায় তারপর কি হয় তা নিয়েই কাহিনি।

অভিনয় করছেন দেবপ্রসাদ হালদার,শর্মিষ্ঠা আচার্য,সানা, ঋক,ইকবাল সুলতান,কমল মিশ্র,ফেরদৌস প্রমুখ।সিরিজে একটি গান আছে।সঙ্গীত পরিচালনা করছেন রংগণ।পাঁচটি এপিসোডের এই ওয়েব সিরিজটি দেখা যাবে অ্যামাজন প্রাইমে।জি 7 এন্টারটেইনমেন্ট নিবেদিত ওয়েব সিরিজটির প্রযোজনা করছেন সঞ্জয় চৌধুরী এবং রবি আগরওয়াল।

Crompton introduces its new Star Lord 3 in 1 Recessed Panels that brings a magical transformation to your space and elevates your mood

0

Kolkata 22 October 2021: India’s legacy brand with over 75 years of experience in diversified lighting solutions, Crompton Greaves Consumer Electricals Ltd has unveiled its new innovation – Star Lord 3-in-1 Recessed Panel. After the successful launch of its flagship product ‘Star Lord’ ceiling lights that deliver maximum brightness and style last year, the brand is now taking its innovation up a notch with its new Star Lord 3-in-1 Recessed Panel. Creating 3 different shades of white light in a single product, this latest creation will provide a multi – lighting ambience throughout the day depending on your mood and time thereby reimagining your home with the best of lighting.

Ceiling lights today not only effortlessly enhance the look of your room décor / the aesthetics of your home, but also helps uplift and elevate the mood. It not just creates the right mood, but adds the functionality that you need for performing essential tasks while inspiring productivity. As we continue spending more time at home where our rooms are now used for multiple purposes, lighting can convert the same rooms from a WFH set-up to a relaxed and calm one with its flexibility like color, control and connectedness.

Keeping in mind the importance of what lighting can do to our home as well as our mood, Crompton’s latest Star Lord 3 in 1 Recessed Panel range is an innovation and a one stop solution that will magically transform the feel of your room, creating a captivating setup to get the right mood going. The rich range of features include:

· 3-in-1 interchangeable colors with higher lumens: Produces 3 different hues of white – Cool White (6500K), Warm White (3000K) & Natural White (4000K) to create the ideal setting of a warm and relaxed atmosphere that goes in line with your mood for the day

· Superior lumen efficiency: Super-efficient 100 lumen/watt LEDs that ensures you get brighter light with lower energy consumption

· Superior aesthetics: Features a modern & contemporary design with an Ultra Slim Rim (10mm thickness) in shapes of both round and square that looks good even when turned off. It results in a sleeker design which merges well with the false ceiling ensuring a more stylish décor that combines the perfect design and illumination to enhance /transform your space.

· Integrated driver for better fitment – Removes the hassles of fitment making it easier to install and replace the product

· Warranty – 2 years

The price range, cut-out and wattage (W) for Star Lord 3 in 1 Recessed Panel includes Rs. 650 for 4 inches with 5W; Rs. 850 for 5 inches with 10W and Rs. 1050 for 6 inches with 15W. Available PAN India as well as on leading ecommerce platforms, this new innovation is all set to present the perfect lighting for the varied moments of your day.

Commenting on its latest offering, Vishal Kaul – Vice President – Lighting, Crompton Greaves Consumer Electricals Ltd. said, “As we spend more quality time at home, lighting goes beyond functional to benefit the psychological and emotional character of the home. Crompton has always provided a range of lighting solutions that cater to your every need, by driving innovation as the backbone across all its products. As our lifestyles evolve with the changing times so have Crompton’s Ceiling Lights that have been designed to help you improve your spaces with the best lighting experience. We understand the benefit of a good lighting that can magically convert your space as well as elevate your mood.”

“Our latest launch of the Star Lord 3 in 1 Recessed Panel leverages this very insight of creating a pleasant experience at home with its interchangeable colors. One light doing the work of 3 different lights, it instantly changes the mood of the room, transforming your space to express the desired ambience – be it work or play.” he added.

Today, Crompton’s lighting design solutions create a meaningful difference in the dynamically changing lives of the consumer. A trusted brand with an aim to illuminate every consumer’s home, Crompton provides a range of offerings in the LED category like lamps, battens, a wide variety of panels as well as downlighters. From a portfolio that includes aesthetically superior product design to different possibilities of colors, ease of fitment and best-in-class performance, Crompton Ceiling Lights will help you re-imagine your spaces and transform your home every time with just a flick of a switch.

About Crompton: With a brand legacy of 75+ years, Crompton Greaves Consumer Electricals Ltd. is India’s market leader in the category of fans and residential pumps. Over the years, the organization has continuously strived to produce a range of innovative products that cater to the modern consumer including superior quality and high-performance water heaters, anti-dust fans, antibacterial LED bulbs and a range of other categories like air coolers, food processors like mixer grinders, electric kettles and garment care like irons. The company has further invested in brand and innovation to not only better understand and meet consumer needs, but to also help drive energy efficiency. The consumer business also has a well-established and organized distribution network driven by a strong dealer base across the country offering a wide service network and robust after sales service to its customers.

Having consistently worked towards the development of energy efficient products, the company bagged two prestigious National Energy Consumer Awards (NECA) for the Most Energy Efficient Appliances of the Year 2019 organized by the Bureau of Energy efficiency (BEE), Ministry of Power – one for Ceiling Fans for its HS plus model and the other one in the LED Bulb category for its 9-Watt LED bulb. The company has also been featured in Brand Top 75 most valuable Indian brands list for 2020 released by WPP and Kantar. Furthermore, Crompton was also recognized as the Brand of the Decade 2021 by Herald Global and BARC Asia in the Consumer Electrical category.

মানুষের পাশে লক্ষ্মী কাশী চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন

0

নিজস্ব প্রতিনিধি: লক্ষী কাশী চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন এমন একটি নাম যারা সারাবছর নানা রকম সামাজিক অনুষ্ঠানের সাথে জড়িয়ে থাকে। বন্যা পীড়িত ,থ্যালাসেমিয়া, ক্যান্সারে আক্রান্ত থেকে শুরু করে দুস্থদের বস্ত্র বিতরণ শীতকালে কম্বল বিতরণ করে থাকেন।

এর জন্য এবছর ২০২১ হাওড়া রত্নে ভূষিত হন এই লক্ষ্মী কাশী চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশনের কর্ণধার লক্ষী ও কাশীনাথ দাস।
প্রত্যেক বছরের ন্যায় এ বছরও এই চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন একটি সামাজিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন ভগবান চ্যাটার্জী লেন হাওড়াতে।

এই অনুষ্ঠানে ২৫০ জন দুস্থ মহিলাদের বস্ত্র বিতরনের পাশাপাশি ৫০ জন থ্যালাসেমিয়া ও ক্যান্সারে আক্রান্ত মানুষদের আর্থিক সাহায্য প্রদান করেন। তার সাথে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শ্রী দ্যুতিমান ভট্টাচার্য্য (IPS) ডিসিপি হাওড়া পুলিশ কমিশনারেট, অধ্যাপক মৃগেন মুখার্জি, অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায়, বাচিকশিল্পী ড: বাসুদেব ভট্টাচার্য,
সংগীতশিল্পী সৈকত মিত্র,বিশিষ্ট অভিনেত্রী শ্রীলা মজুমদার।

সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চলনা করেন ডাঃ মৌ ভট্টাচার্য।

‘পূর্বরঙ্গ’র নতুন নাটক ‘লোকটি’

0

নিজস্ব প্রতিনিধি:পূর্বরঙ্গ মানেই এক অন্য ভাবনা। সমাজ জীবনের এক জলন্ত ছবি। চাষিদের আন্দোলন যখন গোটা দেশের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে ছড়িয়ে পড়েছে তখন “জমি যার নাঙল তার” এই চিরাচরিত দাবি বড় বেশি প্রাসঙ্গিক মনে হয়।

যদিও এ নাটকের দাবি চিরকালীন। মানুষের প্রথম অধিকার খাদ্য বস্ত্র বাসস্থান। বেঁচে থাকার প্রাথমিক শর্ত। কিন্তু এই নূন্যতম চাওয়া পাওয়ার জন্যে প্রাচীন সময় থেকেই লড়াই চলছে। আজকের সময়েও এখনও এই শর্ত পূরণের আশায় বহু মানুষের দিন গোনা চলছে। কিন্তু একদিন এ লড়াই এর শেষ হবেই। ঐক্যবদ্ধ মানুষ বুঝবেই, প্রকৃতির সম্পদে তাদের দাবি। অবসান হবে সমাজের সংখ্যালঘু ধনীর শোষণ। প্রতিষ্ঠিত হবে সেই চিরন্তন সত্য, লাঙ্গল যার জমির ফসল তার। আবারও সৃষ্টি হবে আদিম শোষণমুক্ত সমভোগী সমাজ! নাটকে এই মূল ভাবনার সূত্রপাত একটি মানুষকে নিয়ে। তবে ও মানুষ না দৈত্যদানো তা নিয়ে আশপাশের গাঁয়ের মানুষের মধ্যে সংশয়। কেননা এই ধু ধু ফাঁকা শস্যক্ষেতে লোকটা একা থাকে, একা ধানক্ষেত, গাছ, পাখপাখালি, মাঠ, নদী আকাশের সঙ্গে কথা বলে। তাই এই বিস্তীর্ণ ধানক্ষেত জুড়ে এক গা ছমছমানি ভয় জানা বাঁধে। আর লোকটিকে ঘিরে নানান কথা নানান গল্প তৈরি হয়। হঠাৎই কোথা থেকে একটা মেয়ে এসে ঐ বিস্তীর্ণ জমিতে এসে হাজির হয়। লোকটা মেয়েটাকে দূর করে দিতে চায়। কিন্তু প্রাকৃতিক নিয়মে তারা একে অন্যের সঙ্গে মিশে যায়। ফলে এক ভালোবাসার জন্ম হয়। লোকটা অনুভব করে যে জমি এতোদিন ধরে সে লালন করে এসেছে, তাতে তারও অধিকার আছে। ফলে জমির তথাকথিত দখলদার যখন শষ্যের দখল নিতে চায়, তখন সে রুখে দাঁড়ায়। ক্রমে আশেপাশের গ্ৰামের পিছিয়ে থাকা মানুষগুলোও উপলব্ধি করে ফসলের অধিকার। তারাও তাই শেষ পর্যন্ত মানুষটির পাশে এসে দাঁড়ায়।

মণি মুখোপাধ্যায়ের একটি ছোট্ট গল্পকে আশ্রয় করেই নাটকের বুনন। মলয় রায়ের নাটক রচনা ও সামগ্ৰিক ভাবনা কে ভর করে অপূর্ব নাট্যশিল্পকর্ম তৈরি করেছেন রোকেয়া রায়।রোকেয়ার তারিফ না করে পারা যায়না। শুধু অভিনয় বা পরিচালনা নয়, রোকেয়ার মঞ্চ ভাবনাও অসাধারণ! আরও ভালো লাগে, তখন জানা যায়, এই মঞ্চ এবং মঞ্চ উপকরণ রোকেয়ার সঙ্গে হাত লাগিয়ে নির্মাণ করেছেন দলেরই কুশীলবরা। ওয়ার্কশপ ভিত্তিক এ নাটকের আলো, আবহ সঙ্গীত, মঞ্চ সবটুকুর ভাবনা ও প্রয়োগ পূর্বরঙ্গের। ফলে এ নাটকে প্রকৃত গ্ৰুপ থিয়েটারের দৃষ্টিভঙ্গির প্রতিফলন পাওয়া যায়।

নাটকের স্ক্রিপ্ট অসাধারণ! তারই সঙ্গে নাটকের সঙ্গে সাযুজ্য রেখে অসামান্য কয়েকটি গান লিখে মলয় তাকে প্রচলিত লোকগানের সুরে অপূর্ব ভাবে বেঁধে দিয়েছেন। অন্যান্য কিছু পুরনো গানের নতুনভাবে প্রয়োগ মন ছুঁয়ে যায়। সব গানই জয়দীপ সিনহা সহ পূর্বরঙ্গের কুশীলবরা গেয়েছেন। মঞ্চের ওপর কুশীলবরা গান গেয়েছেন, অদ্ভুতভাবে কন্ঠ নিসৃত শব্দে আবহ সৃষ্টি করেছেন। আবহ নিয়ন্ত্রণ করেছেন তীর্থেন্দু দত্ত। আলো চোখের শান্তি। অপূর্ব আলোক ভাবনা এবং অসামান্য আবহ ভাবনাও মলয়ের। আলোক নিয়ন্ত্রণ করেছেন শশাঙ্ক মন্ডল। শুরুতেই ধান রোযার দৃশ্যটা আলো আঁধারে স্বপ্নের মতন মনে হয়।

মায়াবী আলোয় অভূতপূর্ব মঞ্চ এবং অনন্যসাধারণ আবহে এবং রোকেয়া সহ প্রত্যেকের প্রাণবন্ত দুরন্ত অভিনয়ে
মন একেবারেই অভিভূত হয়ে যায়। নাম চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রভাত তরফদার। এছাড তৃষ্ণা, উপদেশ, সুব্রত দেবীপ্রসাদ, অলি, কৌস্তুভ, দেবস্মিতা, জ্যেতির্ময়, শুভ্রদীপদের কথা আলাদা করে উল্লেখ করতেই হবে।

“লোকটি ” সত্যিই খুবই বলিষ্ঠ প্রজোযনা
এটাই হচ্ছে আসল সত্যিকারের মানুষের জন্য নাটক। নাটকটি দেখে সত্যিই অভিভূত হতে হয়! এই উপস্থাপনাটি মানুষের খাদ্য, বস্ত্র, মাটির অধিকারের কথা বলে। এই অধিকারের জন্য মানুষের আদিম লড়াইয়ের কথা বলে,
মানুষের চিরকালের স্বপ্নের শোষণমুক্ত, আনন্দময়, স্বাধীন সমাজজীবন যাপনের কথা বলে। এবং এই কথাগুলি তারা বলে কাব্যময়তায় মাখা গদ্যে, সমবেত শারীরিক বিভঙ্গে,আর মাটির  ভাষায় লেখা গানে!

এইরকম অস্থির সময়ে এতো সুন্দর একটা প্রযোজনা উপহার দেওয়ার জন্য এবং মানুষের নাটক নতুন করে নতুন আঙ্গিকে তুলে ধরার জন্য পূর্বরঙ্গ কে অনেক ধন্যবাদ। নাটকের শেষে কার্টেন কলে সব কলাকুশলীদের উবু হয়ে মাটিতে বসে থাকার দৃশ্যটি বড় মন কেড়ে নেয়, এ যেন যুগ যুগ ধরে এমনই বসে আছে সারা পৃথিবীর সব খেটে খাওয়া মানুষের দল।

Merlin Group unveils RISE PREMIER LEAGUE (RPL)

0

  • RISE PREMIER LEAGUE,A football league to catapult overall sports and it’s infrastructure in Bengal

• Teams from 16 corporates participate in a two day football tournament followed by 2 exhibition matches
• Football veterans like Manash Bhattacharya, Biswajit Bhattacharya, Prasanta Banerjee and Krishnendu Roy mentor the league
• Raima Sen, renowned film actress grace the event to launch the initiative

Kolkata , October 21, 2021 : Merlin Group, India’s leading real estate conglomerate has announced the launch of RISE Premier League (RPL) – A unique corporate football league in presence of veteran footballers viz. Manas Bhattacharya, Biswajit Bhattacharya, Prasanta Banerjee and Krishnendu Roy.
Smt Raima Sen,renowned actress also graced the occasion and unveiled the logo and the jersey of RPL along with the star footballers and, Mr Saket Mohta, MD of Merlin Group. The two day football league will witness 16 teams from the various corporates of Kolkata facing off each other on ground followed by two exhibition matches at Rajarhat Choumatha on 23rd and 24th of October 2021.

The corporate football league from the house of Merlin Group, is a kick-start to their upcoming self-sufficient residential township called RISE- Sports Republic. This is one of its kind initiatives by the Merlin Group which completely revolves around sports theme. The sports township will be developed to provide an international sporting infrastructure for the first time in Kolkata. The city of joy will not only experience a unique sports themed residential township but the budding athletes of the city will also get an exposure to the international sporting culture. The township will include sports academies and sports related infrastructural facilities that include Cricket Ground, Football Ground, Indoor sports area, swimming pool and a host of other amenities. The township will also include facilities for other sports activities like Basketball, Badminton, Squash and Tennis.

Sixteen teams will be participating in RPL from various corporates of Kolkata viz.; TCS, Genpact, Wipro, Cognizant, HSBC, HDFC, British Telecom, PWC, FIIOB, Red FM, Big FM, Friends FM, Fever FM, Nuvoco Vista Corporate Ltd., Woodlands Hospital and the Merlin Group itself on 23rd October and 24th October. Two exhibition matches will also be played on 24th October. First exhibition match will be played between Regina’s Girls Academy and a guest team of FOS. Second exhibition match will be played between Southern Samity State Sports Academy and Federation of Sports select. All these teams will play under the expert guidance of the veteran footballers Manas Bhattacharya, Biswajit Bhattacharya, Prasanta Banerjee and Krishnendu Roy.

Talking about the RPL and The Sports township, , Mr Saket Mohta, Managing Director, Merlin Group stated, “Kolkata has always been the home-ground of various sports with Football being the most popular sport in Bengal. But there is a dearth of adequate sports infrastructure in the city that can identify and train budding talents. We as a responsible corporate citizen of Kolkata, felt the urge to contribute to the sports glory and heritage of the city. The biggest challenge faced by most of the renowned clubs as well as football academies of the city is the infrastructure. Lack of proper facilities have always concerned me as an ardent sport enthusiast and we as one of the leading real estate companies in country wanted to bring some unique and never seen before sports infrastructural experience to the city. Our upcoming self-sufficient sports themed township “RISE-Sports Republic” is aimed at fulfilling that vision of Merlin Group only . The RISE Premier League is a wonderful initiative towards the development of sports in a homegrown environment of Kolkata.”

About Merlin Group:
Emanated in 1984, Merlin Group is now one of the pre-eminent conglomerates in the real estate industry in India, having a plenitude of prestigious residential and commercial complexes, office buildings and townships to its credit over the past three decades. Its presence spans across Kolkata, Ahmedabad, Raipur, Pune, Chennai as well as Colombo. With the shifting epoch, Merlin Group has now extended its movement to contemporary shopping malls, resort, industrial estate, clubs etc. Merlin Group is your go-to place where you will find it all under one roof. With a fleet of prestigious residential and commercial complexes spanning across India, Merlin Group has innovated with various formats and core projects including premium housing, essential housing, country homes and bungalows, specialty malls, office towers, I.T. buildings, hotels, new generation clubs, and resorts, serviced apartments, stadium and townships.

India’s Kitchen King – Dalda Vanaspati is now Trans-fat free

0

Kolkata, 21 October, 2021: We call it vanaspati while the more scientific-minded know it as hydrogenated vegetable oil – a trusted companion in our kitchen since the 1930s, where the older generations swore by its flavor, richness and good value at a reasonable price. The late 1980s, turned the spotlight on unhealthy fats, and in less than a decade, trans-fats (TFA) were found to be harmful. Ever since then, the vanaspati industry has been working tirelessly to reduce TFA and make the product safer day by day. Standing proud at the forefront of this movement of change is Dalda Vanaspati, a brand that is synonymous with vanaspati in India.

Dalda Vanaspati one of the oldest, strongest and most iconic brands in the country hosted a press conference in Kolkata, to announce that Dalda Vanaspati is now Trans-fat Free. Along with the brand marketing representative, also present at the panel discussion virtually were India’s culinary king Chef Sanjeev Kapoor and renowned Nutritionist Naini Setalvad.

Proud of the brand’s journey so far Mr. Milind Acharya, GM Marketing at Bunge India said, “Dalda has been a house hold brand in India with a rich legacy of over 75yrs. At Bunge India, we are proud of the fact that Dalda is India’s Vanaspati. What really sets Dalda Vanaspati apart though, has been our constant effort to not only meet the food safety regulations in India, but also to keep in step with global developments on health, nutrition and food safety. We at Dalda have always believed in driving for excellence to serve nothing but the best quality products to our consumers. True to our core value of ‘Safety over Profit’ we strived continuously to focus on trans-fat reduction and we are proud to announce that Dalda Vanaspati is Now Trans-fat Free- Ab sehat ke saath, swaad chakhega India! With this promise, Dalda hopes to continue creating magic in every kitchen of India, always”.

Throwing light on the buzz word of this announcement ‘Trans Fatty Acid’ (TFA) or more, simply, ‘trans-fat’, renowned Nutritionist Ms. Naini Setalvad said, “Over the last few decades TFA has become a term that strikes terror in the hearts of health-conscious people. While industry-produced vanaspati is accused of being the only offender in bringing TFA to your plate, the fact is that TFA is also hidden in other commonly consumed products. In some instances, products from animal sources can have TFA as high as upto 5%! However, current wisdom from the WHO is that a TFA amounting to less than 1% of the daily dietary intake is desirable. The total TFA content in Dalda Vanaspati has always been in line with the overall FSSAI guidelines, and now with the brand going trans-fat free as advised by the FSSAI, it is perhaps time for us to view this cooking medium in a new light altogether.”

Reminiscing the sweet nostalgia of yesteryears, Chef Sajeev Kapoor said, “From festive delicacies to lunchboxes, Dalda Vanaspati has ensured sumptuous tasty meals for generations of Indians together. I recall how the elders in my family swore by its rich aromatic taste and strongly believed that a dish wouldn’t taste the same if not prepared with Dalda Vanaspati. Not only has it been consistent in the wonderful taste it imparts to dishes, but it is also one of the most versatile cooking mediums. From adding a silken sheen to soft hot parathas to deep-frying feather light bhatures and binding golden brown samosas. From adding richness to the festive mithai to being the reliable base for everyday ghar ka khaana and snacks, Dalda Vanaspati has been the go-to choice for generations together. Amazingly, the younger generation, who typically associates it with the nostalgic taste of grandma’s cooking, is also discovering its merits for new-age cooking. The announcement of this unique culinary aid, spanning time, traditions and tastes achieving the Trans-fat free status has only assured our continued trust in its innate goodness is well deserved. I tested it myself so I know, it’s time you know too.”

About Dalda: Dalda is one of India’s iconic brands, acquired by Bunge India Private Limited in 2003 from Unilever. It is a heritage of trust handed down over generations. Dalda’s name has been part of millions of households across India for the past 75years as a result of its premium quality and adherence to high quality standards, while being nutritive and uncompromising on taste and aroma. Dalda uses Bunge’s international technology and expertise to successfully make available Dalda’s range of refined and taste oils in the Indian market.

About Bunge Limited: Bunge India is a part of Bunge Limited which is – a leading global agribusiness and Food Company for over 200 prosperous years. Bunge India buys, sells, stores and transports oilseeds and grains to serve customers worldwide; processes edible oil products for commercial customers and consumers; and make ingredients used by food companies.

ভারতের রান্নাঘরের রাজা – ডালডা বনস্পতি এখন ট্রান্স-ফ্যাট মুক্ত

0

কলকাতা, ২১ অক্টোবর, ২০২১: আমরা এটাকে বনস্পতি বলি, যেখানে বৈজ্ঞানিক মনস্ক মানুষেরা একে হাইড্রোজেনেটেড ভেজিটেবল অয়েল হিসেবে জানে – ১৯৩০ এর দশক থেকে আমাদের রান্নাঘরে একজন বিশ্বস্ত সঙ্গী,যেখানে পুরোনো প্রজন্ম এর স্বাদ, সমৃদ্ধি এবং গুনমাণকে মর্য্যাদা দিয়াছে একটি যুক্তিসঙ্গত মূল্যে। ১৯৮০-এর দশকের শেষের দিকে, অস্বাস্থ্যকর ফ্যাট শিরোনামে এসেছিল এবং এক দশকেরও কম সময়ে ট্রান্স-ফ্যাট (টিএফএ) ক্ষতিকর বলে প্রমাণিত হয়েছিল। তখন থেকেই, বনস্পতি শিল্প টিএফএ কমাতে এবং পণ্যটিকে নিরাপদ করতে দিনেরপর দিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছে। গর্বের সাথে এই পরিবর্তনের আন্দোলনের অগ্রভাগে ডালডা বনস্পতি, একটি ব্র্যান্ড যা ভারতে বনস্পতির সমার্থক।

ডালডা বনস্পতি, দেশের অন্যতম প্রাচীন, শক্তিশালী এবং নামকরা ব্র্যান্ড, কলকাতায় একটি সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে ঘোষণা করেছে যে ডালডা বনস্পতি এখন ট্রান্স-ফ্যাট মুক্ত। ব্র্যান্ড মার্কেটিং প্রতিনিধির পাশাপাশি, শেফ সঞ্জীব কাপুর, কার্যত ভারতের রন্ধনসম্পর্কীয় রাজা, এবং প্রখ্যাত পুষ্টিবিদ নাইনী সেতলভাদও প্যানেল আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন।

বুঙ্গে ইন্ডিয়ার জিএম মার্কেটিং মি: মিলিন্দ আচার্য ব্র্যান্ডের এতদূর যাত্রা নিয়ে গর্বিত হয়ে বলেন, “ডালডা ভারতে একটি গৃহস্থালী ব্র্যান্ড হয়েছে যার ৭৫ বছরেরও বেশি সমৃদ্ধ ঐতিহ্য রয়েছে। বুঙ্গে ইন্ডিয়ায়, আমরা গর্বিত যে ডালডা ভারতের বনস্পতি। ডালডা বনস্পতিকে যা সত্যিই আলাদা করে, তা হল আমাদের ভারতে খাদ্য নিরাপত্তা বিধিমালা পূরণ করার জন্য নয়, স্বাস্থ্য, পুষ্টি এবং খাদ্য নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বিশ্বব্যাপী উন্নয়নের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য আমাদের নিরন্তর প্রচেষ্টা। ডালডায় আমরা সবসময়ই বিশ্বাস করি শ্রেষ্ঠত্বের দিকে যাওয়ার ক্ষেত্রে আমাদের ভোক্তাদের জন্য সর্বোত্তম মানের পণ্য প্রদান করা ছাড়া আর কিছুই নয়। আমাদের ‘সেফটি ওভার প্রফিট’-এর মূল গুণমানের সাথে আমরা ট্রান্স-ফ্যাট কমানোর উপর ফোকাস করার জন্য ক্রমাগত প্রচেষ্টা চালিয়েছি এবং আমরা গর্বিত যে, ডালডা বনস্পতি এখন ট্রাসন-ফ্যাট ফ্রি-আব সেহাদ কে সাথ, সোয়াদ চাখেগা ইন্ডিয়া! এই প্রতিশ্রুতির সাথে, ডালডা আশা করে যে ভারতের প্রতিটি রান্নাঘরে জাদু তৈরি করা অব্যাহত থাকবে।”

ট্রান্স ফ্যাটি অ্যাসিড’ (টিএফএ) বা আরও সহজভাবে ‘ট্রান্স-ফ্যাট’, এই ঘোষণার গুঞ্জিত শব্দের উপর আলোকপাত করে প্রখ্যাত পুষ্টিবিদ শ্রীমতি নাইনি সেতলভাদ বলেন, “গত কয়েক দশকে, টিএফএ একটি শব্দ হয়ে উঠেছে যা স্বাস্থ্য সচেতন মানুষের হৃদয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। যদিও শিল্প-উৎপাদিত বনস্পতি আপনার প্লেটে টিএফএ পাওয়ার একমাত্র অপরাধী বলে অভিযুক্ত, আসল বিষয়টি হ’ল টিএফএ অন্যান্য সাধারণভাবে খাওয়া পণ্যগুলিতেও লুকানো থাকে। কিছু ক্ষেত্রে, পশু উৎস থেকে পণ্য ৫% পর্যন্ত টিএফএ থাকতে পারে! যাইহোক, ডাব্লুএইচওর বর্তমান উক্তি হল যে প্রতিদিনের খাদ্য গ্রহণের ১% এরও কম টিএফএ বাঞ্ছনীয়। ডালডা বনস্পতিতে মোট টিএফএ বিষয়বস্তু সর্বদা এফএসএসএআই নির্দেশিকাগুলির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ, এবং এখন এফএসএসএআইয়ের পরামর্শ অনুসারে ব্র্যান্ডটি ট্রান্স-ফ্যাট মুক্ত হচ্ছে, এই রান্নার মাধ্যমটিকে পুরোপুরি নতুন আলোতে দেখার সময় এসেছে। “

অতীতের মধুর নস্টালজিয়া স্মরণ করিয়ে শেফ সজীব কাপুর বলেছিলেন, “উৎসবের খাবার থেকে শুরু করে লাঞ্চবক্স, ডালডা বনস্পতি ভারতীয়দের প্রজন্মের জন্য একসাথে সুস্বাদু খাবার নিশ্চিত করেছে। আমার মনে আছে কিভাবে আমার পরিবারের বয়স্করা এর সমৃদ্ধ সুগন্ধি স্বাদের কসম খেয়েছিলেন এবং দৃঢ় ভাবে বিশ্বাস করতেন যে ডালডা বনস্পতির সাথে তৈরী না হলে একটি খাবার একইরকম স্বাদ পাবে না। এটি কেবল রন্ধনপ্রণালীর বিস্ময়কর স্বাদে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়, এটি অন্যতম বহুমুখী রান্নার মাধ্যম। সিল্কি রেশমী নরম গরম পরোটা থেকে ডোবা তেলে ভাজা হালকা ভতুরা এবং সোনালি বাদামী সিঙ্গারা পর্য্যন্ত। উৎসবের মিঠাইতে ঐশ্বর্য যোগ করা থেকে শুরু করে প্রতিদিনের ঘরের খাবার এবং স্ন্যাকসের নির্ভরযোগ্য ভিত্তি হওয়া পর্যন্ত,ডালডা বনস্পতি সব প্রজন্মের জন্য প্রথম পছন্দ। আশ্চর্যজনকভাবে, তরুণ প্রজন্ম, যারা সাধারণত এটিকে ঠাকুমার রান্নার স্মৃতিবিদুর স্বাদের সাথে যুক্ত করে,তারা নতুন যুগের রান্নার জন্য এর উৎকর্ষও অন্বেষণ করেছে। এই অনন্য রন্ধনসম্পর্কীয় সাহায্যের ঘোষণা, সময়ের সাথে সাথে ঐতিহ্য এবং রুচি যা ট্রান্স-ফ্যাট মুক্ত মর্যাদা অর্জন করে তা কেবল আশ্বস্ত করে যে এর সহজাত কল্যাণের উপর আমাদের উপযুক্ত বিশ্বাস প্রাপ্য। আমি নিজে এটি পরীক্ষা করেছি তাই আমি জানি, এটা আপনারও জানার সময়।”

সৌভিক মন্ডলের এক ভিন্ন ধারার ছবি ‘সর্ষেফুল’ মুক্তি পেল

0

  • আকাশ বাংলার ‘প্লাটফর্ম ৮’ ওটিটি-তে সদ্য মুক্তি পেলো রোল ক্যামেরা অ্যাকশন-এর প্রযোজনায় নির্মিত সৌভিক মন্ডলের এক ভিন্ন ধারার ছবি, সর্ষেফুল

নিজস্ব প্রতিনিধি:সুমন, M.S.C পাশ করে চাকরি পায়নি প্রায় ৫/৬ বছর হল । উত্তর কলকাতার ভাড়া বাড়ির মধ্যবিত্ত সংসারে বাবার চাকরি যাওয়া, সুমনের চাকরি খোঁজার তাগিদকে বহুগুণ বাড়াতে বাধ্য করেছে । এমনিতেই ৫/৬ বছরের অভ্যাসে সুমনের দিন শুরু হয় চাকরির পাতায় চোখ রেখে, আবেদন করে, দিন কাটে সপ্তাহে অন্তত ৩/৪ টে চাকরির ইন্টারভিউ দিয়ে আর দিন শেষ হয় বাড়ি ফিরে পাশের বাড়ির ছেলেটা বা মেয়েটার চাকরি পাওয়ার খবরে । এই দমবন্ধ পরিবেশে সুমনের জীবনে একমাত্র প্রাণ খুলে বেঁচে থাকার জায়গা ইন্দ্রাণীর ভালবাসা । কলেজ জীবনে বই কিনতে গিয়ে কলেজষ্ট্রীট এ প্রথম দেখা, ভালো লাগা, আস্তে আস্তে ভালবাসা । এই ভালবাসায় বিশ্বাসটা এতোটা জায়গা নিয়েছে যে “ভালোবাসি” কথাটা কোনদিন কাউকে বলার প্রয়োজন হয়নি। সুমনের বিশ্বাস একমাত্র ইন্দ্রাণী ই অপেক্ষার রাস্তায় একা দাঁড়িয়ে থাকবে আজীবন তার জন্য । কিন্তু বাড়ি থেকে ইন্দ্রাণীর বিয়ের চাপ সেই বিশ্বাসকে টলাতে শুরু করে ধীরে ধীরে ।

অনেক ব্যর্থতার পরে একটা চাকরির ক্ষীণ আলো দেখা দিল সুমনের কাছে । কিন্তু পাকা চাকরির নাম কা ওয়াস্তে ইন্টারভিউতেও অসফল হল সুমন আর বেকার সুমনকে কোনভাবেই বাড়ির চাপের সামনে দাঁড় করাতে পারল না ইন্দ্রাণী । অপেক্ষার পথে সুমন শুধু একা… একদম একা । জীবন শেষের চরম সিদ্ধান্ত নেওয়ার মুহূর্তেই ঘটল সুমনের জীবন পরিবর্তনের ঘটনা । হঠাৎ তার হাতে এসে হাজির স্বপ্নে দেখা বড় অফিসে বড় পোস্টের চাকরি ।

বাড়িতে মধ্যবিত্ত সেলিবেশনের হাওয়া উড়ে গেল। বদলে গেল ঠিকানা, লাইফস্টাইল। ফিরে পেল ইন্দ্রাণীকে। এঁদো কলতলা ছেড়ে সুমন এখন ক্লান্তি কাটায় উচ্চবিত্তের বেসিনের ঝরনায়। জীবন বদলাতে লাগল, এগোতে থাকল সুমন দিবাস্বপ্ন সত্যি হওয়ার হাত ধরে। সময়ের সাথে বদলেও গেল সুমন। এখন এই সুমনকে চেনে না তার বাবা, মা, ইন্দ্রাণী। তৈরি হল এক সমুদ্র ব্যবধান । ভালবাসা, একসাথে থাকা এখন শুধুই অভ্যস ।

সুমন কি ইন্দ্রাণীকে হারিয়ে ফেলবে, ভালবাসার যে জোর তাকে একদিন বাঁচিয়ে রাখত, সেটা কি শেষ হয়ে যাবে, অনেক উঁচুতে ওঠার যে স্বপ্ন সুমন দেখত, আদৌ সফল হবে নাকি সেই দিবাস্বপ্নেই সবকিছু হারিয়ে নিঃস্ব হবে সুমন… !

চোখে সর্ষেফুল দেখলেই বাকি উত্তর মিলবে…

দেখা যাচ্ছে আকাশ বাংলার অটিটি প্লাটফর্ম ‘প্লাটফর্ম ৮’-এ

অভিনয়ে আছেন:

সোমরাজ

পৃথা সেনগুপ্ত

কৌশিক চ্যাটার্জি

রুমকী চ্যাটার্জি

রানা বসু ঠাকুর

অনন্যা গুহ

শিঞ্জিনী চৌধুরী

দেবব্রত ভট্টাচার্য্য

মৈত্রেয়ী চক্রবর্তী

পরিচালক – সৌভিক মন্ডল
সিনেমাটোগ্রাফার – জয়দীপ দে
সম্পাদক – স্বর্ণাভ চক্রবর্তী
সাউন্ড ডিজাইন- সৌম্য চ্যাটার্জী
সঙ্গীত পরিচালক – শুভদীপ গুহ
স্ক্রিপ্ট লেখক – অভিনন্দন দত্ত
কালারিস্ট – সৌরভ (I.C.G)
প্রোডাকশন ডিজাইনার – সৌভিক মন্ডল
প্রোডাকশন সহায়তা – রানা বসু ঠাকুর
প্রযোজক – সৌরভ সান্যাল ও অভিনন্দন দত্ত (Roll Camera Action)

Revolt Motors to re-open bookings from 21st October at 12pm across 70 cities

0

-Revolt Motors is also expanding its retail presence in 64 new locations including Kolkata, Bangalore, Jaipur, Surat, Chandigarh, Lucknow, Coimbatore, Madurai & NCR

Kolkata, October 19, 2021: Revolt Motors, India’s next gen-mobility company announced the re-opening of bookings of their flagship RV400 across 70 cities from October 21st at 12 pm. With an aim to fulfill the consumer demand, the company is also expanding its sales network and strengthening retail presence by entering 64 new cities in India including Kolkata, Bangalore, Jaipur, Surat, Chandigarh, Lucknow, Coimbatore, Madurai & NCR, from a current 6 city presence by early 2022. Customers who have been eagerly waiting can now book their very own Revolt motorcycle through the company website www.revoltmotors.com.

All the new stores will be set up by retail partners across the key cities. Buoyed by the surge in demand for Revolts bikes, the new stores will focus on India-centric, flexible and cost-effective innovations that will drive the growth of electric mobility, in-line with making India self-reliant. The new centres will not only act as sales points for the company, but also give the customers a chance to experience the vehicle and go through the design, the charging process and how the installation of the charging points take place. Customers can also get a sense of their riding patterns after the test ride.

Speaking on the announcement, Mr. Rahul Sharma, Founder, Revolt Motors said, “Revolt Motors’ ride so far has been very rewarding and we are well positioned to achieve bigger milestones in the coming years. Expanding our current sales network from 6 to 70 cities, comes on the heels of the overwhelming demand from our customers ever since we started rolling out our bikes and the encouraging response from the governments at the Centre and states. Our new sales network will help us cater to this strong order bank across the country and further help us in the EV revolution. At Revolt Intellicorp, we are determined to provide better and safer e-mobility solutions to our customers”.

Revolt Motors has witnessed a phenomenal response from buyers for its flagship RV400 which was sold out within minutes of going on sale every time. In addition to this, the company is also leveraging AI, to upscale and provide an in-house developed contactless experience for its customers. The brand is currently operational in Bengaluru, Delhi, Mumbai, Pune, Chennai, Ahmedabad and Hyderabad.

The RV400 comes with a 3KW (Mid Drive) motor, powered by a 72V, 3.24KWh Lithium-Ion battery that can churn out a top speed of 85km/h. The bike can be operated through the MyRevolt App, which offers connectivity features such as bike locator/Geo fencing, customised sounds that you can change with just a tap on the screen, complete bike diagnostics, battery status, historical data on your rides and KMs done, and also the option of locating the nearest Revolt Switch Station to swap your Revolt’s battery at, and be on-the-move in less than 60 seconds.

RV400 features three riding modes – Eco, Normal and Sport – each suiting to the riding style and needs of the driver. Also, comes with Upside Down (USD) forks up-front and a fully-adjustable mono shock at the rear to give an unparalleled riding experience.

Revolt Intellicorp: Revolt Intellicorp is the next-gen mobility company, created for the smart world. Revolt is working with a vision of democratizing clean commutes using next-gen mobility solutions and a mission to create a future of next-gen mobility with 100% accessibility and 0% fuel residue. With technology at its roots and class-apart products, Revolt has introduced India’s first AI-enabled motorcycle without compromising on the performance or aesthetics of a regular ride. Revolt Intellicorp commenced operations in 2019. The company offers two EV models in India currently, in addition to a full range of genuine parts and accessories available through its authorized dealerships.

For more details: www.revoltmotors.com

Dabur Honey celebrates Shubho Bijoya with the Honey Collectors of Sundarbans

0

  • – Unveils a new digital campaign “Sweetness of Giving Back”

Kolkata October 19, 2021: There is a saying that ‘Sharing and Giving are the ways of God’. On the occasion of Bijoya Dashmi, Dabur Honey announced a new CSR initiative to support the livelihood of honey collectors of Sundarbans, who have witnessed their livelihood being impacted due to multiple cyclones and massive floods in the region over the past few months. Christened ‘Sweetness of Giving Back’, this initiative aims to support the families of these honey collectors during these trying times.

“The Honey Collectors of Sundarbans are the backbone of the Honey Industry in India. The floods, which came on the back of the devastating second wave of COVID, has severely impacted livelihood in the Sundarbans region, destroying crops and even leading to scarcity of drinking water across villages. As part of our mission to support the families of honey collectors, Dabur will be providing dry ration and other daily essentials for the next one year, to 23 families identified in this region who are involved in the profession of honey collection. This is not only in line with our mission of being ‘Dedicated to the Health and Well-Being of every Household’, but also to spread festive smiles during this period of Durga Puja,” Dabur India Ltd. Category Head-Health Supplements, Mr. Kunal Sharma said.

To pay tribute to the Honey Collectors of Sundarbans, Dabur Honey also unveiled a digital film which seeks to promote the hard work put in by this community. Capturing the festive spirit through the happy faces celebrating Durga Puja with relishing mouth-watering Sandesh made from the fruit of their own labour i.e. Dabur Honey.

The film is conceptualised and produced by ICE Media Lab, a Content Shop specialises in content first brand films.

Debojit Saha, Creative Head, ICE Media Lab said, “The sight of the flood hit village & the state of villagers caught us numb when we reached there! During our previous assignment, we worked, ate and chatted with these people and the feeling was hitting even more. Once Dabur decided to give back to the honey collectors of Sunderbans, we decided to chip in with them. When we took the relief material, there including clothes, food and sweets, their joy had no bounds. We captured their reaction shots upon the receiving of the aid without them noticing the camera is on! It feels good to make a small impact to the community especially on the onset of Durga Puja! Pure bliss! It’s a surreal feeling.”