*Help My Daughter Raise Funds To Recover From Neuro Cerebral Palsy*https://www.impactguru.com/fundraiser/help-alisha-islam
Home Blog Page 256

নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রদান নিখিলবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির

0

আনন্দ সংবাদ লাইভ :নিখিলবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির হুগলী জেলার পাণ্ডুয়া জোনের অন্তর্গত ইটাচুনা চক্রের উদ্যোগে আজ ওড়ারডাঙ্গা, দাবরা,রামেশ্বরপুর, চাঁদপুর অঞ্চলের প্রায় ৬০টি দুঃস্থ অসহায় অভিভাবক পরিবারের হাতে ডাল, তেল,সোয়াবিন,চিড়ে সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর তৈরি ত্রাণ সামগ্রীর প্যাকেট তুলে দেওয়া হয়। উপস্থিত ছিলেন জেলা সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য জয়দেব ঘোষ,জেলা কমিটির নেতৃত্ব সুনীল বাস্কে,অশোক দাস,গৌরাঙ্গ বাহক,চক্র সম্পাদক করণ মুর্মু, রুহুল আমিন,সুভাষ মালিক,সৌমি ভট্টাচার্য্য,গৌতম মৃধা সহ শিক্ষক নেতৃত্ব । আজ শুরু হলো আগামী দিনে এমন কাজ চলবে বলেই জানান চক্র সম্পাদক।

Nestlé MUNCH And Star India Network Celebrate ‘Crunch Ka Attitude’

0

Anando Sangbad Live: Nestlé MUNCH, one of the leading confectionary brands reaching to over 80 million households every year and Star India network, which reaches 700 million viewers a month, are pleased to announce the launch of #CrunchKaAttitude campaign. The campaign celebrates the confidence and spirit of many young Indians and their families during these testing times and aims to spread hope and positivity. It will be rolled out across Star India’s network of channels as well as select digital platforms in Hindi, Tamil, Telugu, Malayalam and Kannada.
Commenting on the launch of the campaign, Mr. Nikhil Chand, Director – Foods & Confectionery, Nestlé India, said, “In the current environment, the young in the family have their own sets of doubts to overcome – like exams getting postponed, online classes, connections with friends becoming virtual and many such moments of doubts. But, in these moments of anxiety and fear of the unknown, the resourceful and resilient young Indians play their part with enthusiasm and positivity to make a difference to their families, friends and especially themselves. Nestlé MUNCH, with a range of delicious, light, affordable treats, has stood for crunching any anxiety with the power of this positive attitude. The video voices a sentiment of resolve of the youth of India to play their part with a positive attitude. Nestlé MUNCH proudly collaborates with Star India network to celebrate this inventiveness and positivity, this #CrunchKaAttitude of millions of youngsters across India.”
“We are excited to collaborate with Nestlé MUNCH to roll out ‘Crunch Ka Attitude’ campaign across our network, to share the message of hope and positivity to millions of our viewers. It’s inspiring to see how the youth is boldly accepting the ‘new normal’ during these unprecedented times. Besides supporting their families with daily chores, they are also upskilling themselves to come out of the situation better and stronger,” said Nitin Bawankule, Head – Ad Sales, Star and Disney India.
Facebook Link to the video: shorturl.at/hnwET

“মা হওয়া পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ অনুভূতি”:অঙ্কিতা

“জড়োয়ার ঝুমকো“ খ্যাত টলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী কী জানালেন নিজের মাতৃসত্বা নিয়ে ! লকডাউনের দমবন্ধকর পরিস্থিতিতে একপশলা বৃষ্টি ও তাজা ফুলের সুগন্ধি নিয়ে ফোনের অপরপ্রান্তে ধরা দিলেন অঙ্কিতা মজুমদার পাল। সঙ্গে আনন্দ সংবাদ লাইভ -এর প্রতিনিধি আলাপন রায়

প্রশ্নঃ জীবনে প্রথমবার মা হতে চলেছো, ঠিক এইমুহূতে কেমন অনুভব করছো ?

অঙ্কিতাঃ মা হওয়া পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ অনুভূতি । আর আমার বন্ধুদের মতে খুব শীঘ্রই আমি মা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি , তো তাদের কাছে আমি একজন ইয়ং মাদার । এত অল্প বয়সে মা হওয়ার কারনে এখন সবকিছু বুঝতে একটু সময় লাগছে । এইসময় তো প্রত্যেক মেয়েরই বাপের বাড়িতে নিজের মায়ের কাছে থাকায় কাম্য, কিন্তু লকডাউনের জন্য যেটা সম্ভব হচ্ছেনা । ফোনে রোজ কথা হলেও সামনাসামনি যতটা সাবলীলভাবে কথা বলা যায় সেটা ফোনে হয়ে ওঠে না । এ এক অদ্ভৃত অনুভূতি । সবমিলিয়ে দারুন উপভোগ করছি নিজের মাতৃসত্বাকে । আর সমস্ত মায়েদের মত অনুভূতিটা খুবই স্পেশাল আমার কাছেও ।

প্রশ্নঃ সুখবরটা জানানোর পর পরিবার থেকে কেমন প্রতিক্রিয়া পেলে ?

অঙ্কিতাঃ এই প্রশ্নের জবাব দিতে হলে একটু অতীতে ফিরে যেতে হয় । যখন স্বপ্ন দেখতাম আমারও একদিন বিয়ে হবে, আমিও একদিন মা হব তখন সিরিয়াল কিম্বা সিনেমায় যেভাবে দেখানো হয় ঠিক সেইভাবেই সুখবরটা জানাবো ঠিক করি। কিন্তু এখন বুঝতে শিখেছি বাস্তবে সেটা সম্ভব হয়ে ওঠে না । প্রথমবার যখন আমার গর্ভে নতুন প্রানের অস্তিত্ব জানতে পারি সেটা নিজের স্বামী সৌমিত্রকেও গুছিয়ে বলতে পারিনি । শুধু ওর দিকে তাকিয়ে একগাল মুচকি হাসিতেই ব্যাপারটা ও বুঝে গিয়েছিল । আজও মনে আছে সুখবরটা জানতে পেরে কিভাবে মুহূর্তের মধ্যে বদলে গিয়েছিল ওর মুখের এক্সপ্রেশনটা । এখন মনে হয় মুহূর্তটা যদি ক্যামেরা বন্দি করে রাখতাম তবে দারুন হত । এছাড়া মাকে যখন ফোনে খবরটা দিতে চাই সেটা বুঝতে মায়ের প্রায় মিনিট পাঁচেক সময় লেগে গিয়েছিল । আমি পরিবারের একমাত্র সন্তান আর তার উপর সেইসময়ে মা-বাবার শরীরটা একটু খারাপ ছিল তাই খবরটা জানতে পেরে দুজনেই খুশিতে আত্মহারা হয়ে উঠেছিল । অন্যদিকে সৌমিত্রও পরিবারের একমাত্র সন্তান আর আমরা দুজনে মিলে এক নতুন প্রাণকে আনতে চলেছি সেটা দুই পরিবারের কাছে খুবই আনন্দের খবর ।

প্রশ্নঃ বাড়িতে সময় কাটছে কীভাবে ?

অঙ্কিতাঃ অনেকের মুখে শুনছি তাদের সময় কাটছে না । কিন্তু আমি বুঝতে পারছিনা আমার সময় কিভাবে চোখের নিমেষে কেটে যাচ্ছে । কেউ যদি জিজ্ঞাসা করে আজ কত তারিখ কিম্বা সপ্তাহের কোন দিন,সেটা মনে করতেই অনেক সময় কেটে যাচ্ছে । বলতে গেলে এখন রান্নার যাবতীয় কাজ আমার শাশুড়ি মা সামলাচ্ছেন । মাঝেমধ্যে আমার কিছু স্পেশাল রান্না করার ইচ্ছা হলে আমি তা করছি । এছাড়া প্রচুর সিনেমা ,ওয়েব সিরিজ দেখছি । আগে রোজ নিউজ পড়ার সময় পেতাম না কিন্তু এখন রোজ সমস্ত নিউজ পড়ছি । সৌমিত্র অনেক কিছুর খবর রাখে, কিছু জানার থাকলে ওর থেকে জেনে নিচ্ছি । ও আমাকে কয়েকটা বই দিয়েছে সেইগুলো পড়ছি । এছাড়া অনেক অজানা তথ্য গুগল সার্চ করে জেনে নিচ্ছি । প্রেগন্যান্সি রিলেটেড অনেক ভিডিও দেখছি, যততা সম্ভব শরীরচর্চা করছি এবং প্রয়োজন অনুসারে বিশ্রামও নিচ্ছি । মোটামোটি এইভাবেই দিন কাটছে ।

প্রশ্নঃ এইসময়ে পরিবার থেকে বাড়তি কেমন আদর যত্ন পাচ্ছো ?

অঙ্কিতাঃ আগে যেমনটা বলেছি, আমি পরিবারের একমাত্র সন্তান । আর এদিকে সৌমিত্রও পরিবারের একমাত্র সন্তান । তাই ছোট থেকে এখনও পর্যন্ত দুই বাড়িতেই ভীষণ রকম আদরযত্ন পেয়ে এসেছি । তাই এই মুহূর্তে বাড়তি কোনো আদরযত্ন পাচ্ছি কিনা সেটা বলা একটু মুশকিল আছে । তবে হ্যাঁ, এটা বলতে পারি আমার খাওয়ার বাপারে পরিবারের সবাই ভীষণ সতর্ক হয়ে উঠেছে । খাওয়ার উপরে অনেক বিধি-নিষেধ চাপানো হয়েছে । আগে পচ্ছন্দ না হলে এড়িয়ে যাওয়ার অধিকারটুকু ছিল এখন সেই স্বাধীনতা হারিয়েছি । সুস্বাদু না হলেও আমার জন্য, আমার সন্তানের জন্য উপকারী এমন অনেক খাওয়ার খেতে হচ্ছে । এই শাসনগুলো ভীষণভাবে উপভোগ করছি । কিছুদিন আগে রাত্রিবেলা কাউকে না জানিয়ে দুটো রসগোল্লা খেয়ে ফেলায় রীতি মতো তার জন্যে সৌমিত্রর কাছে বকা খেতে হয়েছিল । এছাড়া সবসময় কেউ না কেউ আমায় নজরে রাখছে । ঘরের মধ্য একটু হাঁটা-চলা করলে বারবার এসে দেখে যাচ্ছে সঞ্জানে আছি কিনা । এই কেয়ারিং ব্যাপারগুলো খুব ভালো লাগছে ।

প্রশ্নঃ বাপের বাড়ির লোকজনদের কতটা মিস করছো ?

অঙ্কিতাঃ খুব বাজেভাবে মিস করছি মা-বাবা দুজনকেই । সেই ফেব্রুয়ারী মাস থেকেই গুয়াহাটিতে শ্বশুরবাড়িতেই আছি । এর আগে জীবনে কোনোবার এতদিন মা-বাবার থেকে দূরে থাকিনি । জীবনের এমন একটা সুন্দর সময়ে মাকে চোখের সামনে দেখতে পাবো না, সেটা স্বপ্নেও কল্পনা করিনি ।

প্রশ্নঃ এইসময়ে নিজের যত্ন নিচ্ছ কিভাবে ?

অঙ্কিতাঃ অবশ্যই আমি যে পেশার সাথে যুক্ত আছি সেখানে নিজের যত্ন নিতে হয় । ক্যামেরার সামনে কাজ করতে হলে নিজের খেয়াল রাখাটা খুব জরুরী । এখন যেহেতু কোনো বিউটি পার্লার কিম্বা স্যালুনে যাওয়ার সুযোগ নেই তাই বাড়ীতেই নানা ঘরোয়া উপায়ে ত্বকের যত্ন নিতে হচ্ছে । লকডাউনে একটা জিনিস উপলব্ধি করেছি, নামি-দামি ক্রিম মেখে যা না ফল পাওয়া যায় তার থেকে ঘরোয়া টোটকা অনেক বেশি কার্যকরী । লকডাউনের প্রথমদিকে এখানে অবস্থা খুব শোচনীয় ছিল । প্রায় সমস্ত দোকানপাট বন্ধ ছিল । দুয়েকটা খুললেও সেখানে যা ভিড় হত তার ধারে কাছে যাওয়ার সাহস কারো হত না । এখন যদিও অবস্থা একটু নিয়ন্ত্রনে আসার কারনে প্রয়োজন অনুসারে সব খাদ‍্য-সামগ্রি পাচ্ছি । আপাতত সেইগুলো খেয়ে, প্রচুর পরিমানে জল খেয়ে নিজেকে সুস্থ রাখার চেষ্টা করছি ।

প্রশ্নঃ এই পরিস্থিতিতে আসন্ন সন্তানের জন্য কী একটু হলেও আশঙ্কা হচ্ছে ?

অঙ্কিতাঃ আশঙ্কা তো একটু থেকেই যায় । চারিদিকের অবস্থা দেখে অবশ্যই নিজের সন্তানের জন্য একটু চিন্তা হয় । যতটা পারছি নিজেকে শারীরিক ও মানুষিক ভাবে সুস্থ রাখছি কারন সন্তানকে সুস্থ রাখতে হলে নিজে সুস্থ থাকাটা খুব দরকার । এই বছরের সেপ্টেম্বর মাসে আমার প্রসবের দিন নির্ধারিত হয়েছে । জানি না ওইসময় ভাইরাসের প্রকোপ বাড়বে কি কমবে ! সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে একজন মা হিসাবে চিন্তা তো থেকেই যায় ।

প্রশ্নঃ সবার থেকে শুভেচ্ছাবার্তা কেমন পাচ্ছো ?

অঙ্কিতাঃ আশাতীতভাবে আমি অনেক শুভেচ্ছাবার্তা পেয়েছি । পরিচিতদের থেকে তো অনেক পেয়েছি । এছাড়া যেটা সব থেকে বেশি ভালো লেগেছে, এমন অনেক মানুষ যাদেরকে ব্যক্তিগতভাবে সেইভাবে চিনি না তাদের থেকেও অনেক ভালোবাসা পেয়েছি । বহু ফোন কল, ম্যাসেজ , টেক্সট পেয়েছি । যেগুলো অনেক খুশি দিয়েছে আমাকে ।

প্রশ্নঃ নতুন একটা দায়িত্ব বাড়তে চলেছে, পরবর্তীতে ব্যক্তিগত জীবন ও কর্মজীবনে ব্যালেন্স করাটা একটু মুশকিল হবে বলে কী মনে হয় ?

অঙ্কিতাঃ না, আমার ক্ষেত্রে তা মুশকিল হবে বলে মনে হচ্ছে না ।আমি বরাবরই ব্যালেন্স করে চলতে ভালোবাসি । মফস্বলের মেয়ে আমি, বহু সংগ্রাম করে আজ এখানে পৌঁছেছি । এই ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক পরিশ্রম করে নিজের অস্তিত্ব যখন গড়ে তুলতে পেরেছি তখন পরবর্তীতে সেটা চালিয়ে যেতে পারব আশা রাখছি । এমনিতেই কাজের বাইরে আমি বেশিরভাগ সময় বাড়ীতে থাকতে পচ্ছন্দ করি । ঘুরতে যাওয়ার হলে দূরে কোথাও ভারতের মধ্যে কিম্বা ভারতের বাইরে যেতে ভাল লাগে ।তাই ব্যালেন্স করাটা খুব বেশি কষ্টকর হবে বলে মনে হয়না ।

প্রশ্নঃ আসন্ন শিশুর জন্য আগাম কোনো প্লানিং আছে কী ?

অঙ্কিতাঃ অবশ্যই অনেক প্লানিং ছিল । কিন্তু লকডাউনের কারনে সব কিছু বাতিল করতে হচ্ছে। অনেক ইচ্ছা ছিল মা আর শাশুড়ি মা এর হাত থেকে সাধ খাওয়ার, আমার বন্ধুরাও চাইলে খাওয়াতে পারতো । এছাড়া বেবি বাম্প নিয়ে ফটোশুটেরও ইচ্ছা ছিল । এইসময়টা সমস্ত মেয়ের কাছে একটা স্বপ্ন । কত পরিকল্পনা করেছিলাম, অনেক জায়গায় ঘুরতে যাবো,অনেক শপিং করবো, এছাড়া এই কয়েকদিন সবার সাথে একসঙ্গে সময় কাটাবো-কিন্তু আপাতত সব প্ল্যান বাতিল । যেটা একটু খারাপ লাগছে । তাছাড়া সন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে তো এখন কিছু বলা সম্ভব নয়,সেটা তো বেড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে বোঝা যাবে । এখন একটাই ইচ্ছা সুস্থ-স্বাভাবিকভাবে সন্তানের জন্ম দিতে পারি,তাকে যেন সুন্দর ভাবে বড়ো করে তুলতে পারি আর সবাই যেন খুব খুশি ও ভালো থাকে ।

Hand Sanitiser in a sachet format

0

Anando Sangbad Live: ITC Savlon is known for redefining norms conscientiously. In an inclusive step forward Savlon launches its Hand Sanitiser at a price of just INR 0.50 (half a rupee). The Savlon Hand Sanitiser in a sachet format at this price makes it probably the worlds most economical hand sanitiser available today. The COVID-19 outbreak is an unprecedented pandemic and in a responsible step forward, Savlon introduced the hand sanitiser sachet to address the issues of accessibility, affordability and availability. Designed for a one-time use, the Savlon Sanitiser Sachet is extremely cost-effective and an accessible out-of-home sanitising solution.
Developed with the help of global leaders like Givaudan, the Savlon Sanitiser in a sachet format reiterates its stringent quality norms with this world class product. The economical pricing makes Savlon sanitiser sachet almost as cost effective as a hand wash.
As the world braces to witness the new normal, hand hygiene is emerging as a global priority. The awareness of hand hygiene and its imperative need is now a well-established discourse but often access to hand hygiene becomes a challenge due to lack of facilities and resources. Organisations like WHO and UNICEF estimate that globally 3 billion people lack hand hygiene facilities at home. This is even more critical when stepping out for work especially in the low- or middle-income households.
Sameer Satpathy, Chief Executive, Personal Care Products Business Division, ITC Limited said, We are amidst an unprecedented global health crisis and it is imperative to accelerate our efforts in introducing innovative solutions to help fight the pandemic. Precautionary measures of personal hygiene have today become a household need besides social distancing, to contain the spread of this contagion. The launch of probably the Worlds most economically priced hand sanitizer in a sachet format is an endeavour to ensure a wide access to hand hygiene.
Ajit Pal, Regional Director, South Asia, Fragrances Division, Givaudan says, The name Savlon stands for reliability. The consistency with which ITC has upheld the various attributes that make it one of the best brands of its kind in the world is truly commendable. We at Givaudan feel privileged to have been a partner in the sensorial journey of the brand. The launch of Savlon sanitiser in a single use sachet at the incredibly low price marks a major milestone in the brand’s history. It delivers the same standards of quality and reliability that Savlon stands for but for the first time at a price point that makes it available to millions of new consumers. It meets an important health and safety need today and this launch ITC has indeed made its contribution towards a national cause.”   
Savlon India has been at the forefront of this unprecedented outbreak. To enhance supply and availability, ITC on a war footing repurposed its world class perfume facility to produce an additional 1.25 lakh litres of hand sanitisers. Savlon has been relentless in its pursuit to serve a national priority and a key step has been to accelerate innovations that can offer significant anti-viral & anti-bacterial protection. The innovative, Savlon Hexa, its advanced hand sanitiser designed for quick and persistent action, was one of the quickest launches during the lockdown, brought to fruition in a record time, to help the frontline medical staff and consumers alike. To help fight against COVID-19, Savlon launched the Zero Contact Surface Disinfectant Spray. An incredibly versatile Surface disinfectant spray that effective kills a wide range of viruses, bacterial molds and fungi on frequently touched areas with just a spray. The brand has partnered with various state Governments to ensure availability of Savlon Handwashes and Hand sanitisers and teams have been working round the clock to help innovate, manufacture and distribute to meet the exponential surge in demand for hygiene.

কাজি নজরুল ইসলামের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘বাধনহারা’

আনন্দ সংবাদ লাইভ:সদ্যই গেছে কবিপক্ষ। আসলে সত্যিই কি গেছে? কবিপক্ষ বলতেই আমরা বুঝি নোবেল লরিয়েট আমাদের আপামর বাঙালির সুরে থাকা, যাপনে থাকা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তাই জষ্টি মাসে ভুলেই যাই আরও একজন আছেন, যিনি সাহিত্যের এক পালাবদলের সূচক। তিনি কবি কাজী নজরুল ইসলাম। চিরকাল ই অগোচরে থেকে যাওয়া এই কবির ১২১ তম জন্মবার্ষিকী তে অর্থাৎ আগামী ২৫ শে মে হাফ পেন্সিল, ঘোষ কোম্পানি এবং এসপিসিক্রাফটের যৌথ উদ্যোগে পালিত হতে চলেছে নজরুল দিন। এই কঠিন পরিস্থিতিতে গৃহবন্দী থেকেই একটি ভিডিওর মাধ্যমে উদযাপন করছেন এসপিসিক্রাফটের সদ্যসরা এবং বিশিষ্ট গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব শর্মিষ্ঠা গোস্বামী চ্যাটার্জি। ভিডিওটির সূত্রকথনে আছেন কবি শ্রীজাত। রবীন্দ্র নজরুল সম্পর্ক,নজরুলের গান, তাঁর প্রেম সব নিয়েই জমজমাট একটি ভিডিও প্রকাশিত হতে চলেছে যার নাম ‘বাঁধনহারা’। সম্পূর্ণ ভিডিও টি সম্পাদনা করেছেন অর্ক গোস্বামী।
ভিডিও প্রসঙ্গে কী বলছেন উদ্যোক্তারা?
হাফ পেন্সিলের অধিনায়ক শান্তনু গুহ রায় জানিয়েছেন, “এসপিসিক্রাফটের এই উদ্যোগ কে স্বাগত। আমরা বিশ্বাস করি, নজরুল আজও প্রাসঙ্গিক। বিশেষ করে নবীন প্রজন্মের জন্য। এই কাজে ব্রতী হয়ে আমরা গর্বিত। সুজয়কেও ধন্যবাদ।”
শিল্পী সুজয়প্রসাদ চ্যাটার্জি জানালেন, “নজরুল চিরকালই বাংলা সাহিত্যে একরকম ব্রাত্য। অথচ নজরুলের দেশাত্মবোধ ও প্রেম কোনটির সঙ্গেই আমরা তেমন পরিচিত নই। নজরুলের প্রাসঙ্গিকতা নিয়েও আমরা উদাসীন।তাই তাঁর জন্মদিনে এই বিশেষ উদ্যোগ।”
ঘোষ কোম্পানির অধিনায়ক অভিষেক ঘোষ জানিয়েছেন, “এই যৌথ উদ্যোগের মধ্যে দিয়ে একদিকে বাংলার সাংস্কৃতিক চর্চার কেন্দ্রটি প্রখর করে তোলার পাশাপাশি ডিজিটাল মাধ্যমে আরও সক্রিয় হওয়া ও মানুষের কাছে পৌঁছানো আমাদের লক্ষ্য। যাতে, মানুষ এক নতুন দিশা দেখে।”
আগামী ২৫ শে মে, ২০২০ প্রকাশিত হতে চলেছে ভিডিও টি।

Rangoli writes an emotional post as Kangana wears her old Saree at her Grih Pravesh

0
Kangana and Rangoli

Anando Sangbad Live:Rangoli Chandel, sister of Bollywood actress Kangana Ranaut recently took to instagram to share some beautiful pictures of the actress looking extremely beautiful in a Paithani Saree which she draped for Rangoli’s house warming pooja.

What makes the saree more special is that it belongs to her sister Rangoli.
Seeing Kangana drape her old saree made Rangoli extremely emotional.
Talking about the story behind the saree and what made her emotional , Rangoli says,
“In this lockdown it was getting difficult to travel to my house site, luckily we were in green zone so Ajay and I decided to live in the house to get remaining exterior work done , We decided to postpone our house warming party and only did Pooja, in the morning when Kangana saw me leave for my house she was shocked to see me in my track suit almost screamed aren’t you getting ready?? I was like no one is coming … she said it’s a special day just do little something… and the little something she did was steamed my Paithani Sari ..made me wear my wedding jewellery, did my eye make up and she herself wore my first karva chauth sari… then she ran to get flowers from her garden, decorated my hair … and result is here sharing with you all … I sometimes wonder people who don’t have enthu lil fashionista sister … how do they manage their lives. She looked extremely beautiful in the saree and it was an extremely special day for us.”
Sister goals they aren’t they!

https://www.instagram.com/p/CAXUar3JwBT/?igshid=yec6y6b2lxke

Gemplex’s latest offering- Silence of Sleep

0

Anando Sangbad Live :While we are all feeling a bit travel deprived amidst the lockdown, Gemplex is ready to take you to the beautiful Himalayan hills through their latest series “Silence of Sleep”. The two-part web film is a psychological suspense thriller shot in the beautiful hills of Uttarakhand in places like Kausani, Nanital & Ranikhet.

The web film is a Rowdy Rathore Production film and the lead cast compromises of RishabhRaj Mehrotra and Naina Khan, ably supported by seasoned actors like Krishna Srivastava & Rahul Tomar. RishabhRaj earlier featured in Gemplex original series “Twosome” as well.

Keeping its varied contents slate promise, Gemplex brings to its viewers an edge of the seat thriller Directed by Sudhish Kumar and produced by Udayyan Raathore and Divvya Rathore. The web film premieres on the platform this 20th May with a runtime of 90 minutes (48 mins and 44 mins).

This Film is the story of a woman who has suffered a serious accident while she was hypnotized by her mysterious and psychopath love and is now in coma. All she can do is think of different ways to take revenge on this person who has trapped her against her will. But the effects of hypnotism seem to be so strong that things don’t go as per plan even in her own imagination. She realizes that she is alone in this struggle and has only two options, to keep fighting or to give up.
Gemplex is a niche Video-on-demand platform having their presence in India and 50+ countries worldwide. They have an amazing range of contents targeted at all sections of the society. You can stream the contents and the latest release on www.gemplex.tv and can download the App on Android, iOS and Amazon Firestick.
Trailer link of Silence of Sleep: https://youtu.be/mamAqG9yV7E

নিট-এর মোটিভেশন ক্লাস

0
আনন্দ সংবাদ লাইভ:ক্লাসের নাম দিয়েছিলেন তাঁরা, অন্তরে যে শক্তি আছে। এবছরের উচ্চ মাধ্যমিকের বাকি দুটি পরীক্ষা এবং মেডিকেলে ভর্তির পরীক্ষা নিট-এর যারা প্রস্তুতি নিচ্ছে তাদের নিয়ে অভিনব এক মোটিভেশন ক্লাসের রাস্তা দেখিয়ে দিল স্যান্ডফোর্ড অ্যাকাডেমি। আজ রবিবার তাঁরা অনলাইনে এই ক্লাসের আয়োজন করেছিল। রাজ্যের বিভিন্ন জেলার দুশো ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে স্যান্ডফোর্ড গত দশ দিন ধরে অনলাইনে বিশেষ ক্লাস ও পরীক্ষার বন্দোবস্ত করে। আজ রবিবার ছিল তার শেষ দিন। এদিনের মোটিভেশন ক্লাস নিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে তো বটেই উৎসাহের অন্ত ছিল না অভিভাবকদের মধ্যেও। প্রখ্যাত মনোবিদ অধ্যাপক গৌতম বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন এদিনের আকর্ষনের কেন্দ্রবিন্দু। তিনি সমাজের সকল শ্রেণীর ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবকদেরকে কিছু করার তাগিদ নিয়ে এগিয়ে আসার ব্যাপারে মনোবল যোগান।তিনি বলেন জীবনে প্রতিটি অবস্থার জন্য প্রস্তুত যারা থাকতে পারে তারাই টিকে থাকে। এই অনিশ্চয়তার দিনগুলিতেও যারা নিজেদের প্রস্তুত করার ব্রত নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে তিনি তাদের উৎসাহিত করেন। তিনি বলেন১৮৬৫ সাল নাগাদ মহামারীর কারণে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে দেড় বছর পঠন-পাঠন বন্ধ রাখতে হয়। সেই সময়ে বিজ্ঞানী নিউটন তাঁর কতগুলি যুগান্তকারী আবিষ্কার করেন। অতএব এটাকে অভিশাপ না ধরে আশির্বাদ স্বরূপ আমাদের ছাত্রছাত্রীরা নিতে পারে। এই পরিস্থিতিতে স্যান্ডফোর্ড অ্যাকাডেমির এ ধরনের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান তিনি । এ দিনের ক্লাসে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক আব্দুর রহিম খান, জসিম উদ্দিন মন্ডল, ড. ফারুক আহমেদ, ড. ফিরদৌস আহমেদ, পান্থ মল্লিক, আনিশ পারভেজ, রামিজ আহমেদ। সমগ্র অনুুুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন নায়ীমুল হক।বিনা
খরচে রাজ্যের প্রায় প্রতিটি জেলার ছাত্র-ছাত্রী স্যান্ডফোর্ড অ্যাকাডেমির এই পরিষেবা গ্রহণ করে বলে জানান অ্যাকাডেমির টেকনিক্যাল এডিটর আনিস পারভেজ ।

লকডাউন বাড়ল ৩১ মে পর্যন্ত

0
আনন্দ সংবাদ লাইভ: পূর্বাভাস ছিলই মতোই চতুর্থ দফার লকডাউন বাড়ল ৩১ মে পর্যন্ত। রবিবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে এই ঘোষণা করা হয়। সোমবার, সপ্তাহের প্রথম দিন থেকেই লকডাউন ৪.০ কার্যকর হবে। তবে এই দফায় জোন ভিত্তিক বেশকিছু ছাড়ের ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে।৩১ মে পর্যন্ত লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর কথা জানিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয় ভাল্লাকে একটি চিঠি দেয় জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কর্তৃপক্ষ। ওই চিঠিতে সমস্ত রাজ্যকে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।৩ মে থেকে তৃতীয় দফার লকডাউন শুরু হয়েছিল। তা আজ অর্থাৎ ১৭ মে শেষ হচ্ছে। চতুর্থ দফার লকডাউনের কথা আগেই জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেইমতো এদিন সন্ধ্যায় লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর কথা ঘোষণা করে কেন্দ্র। তবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের ঘোষণার অপেক্ষা না করেই ৩১ মে পর্যন্ত লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে দেয় মহারাষ্ট্র ও তামিলনাড়ু। এর আগে দেশের প্রথম রাজ্য হিসেবে লকডাউনের মেয়াদ ২৯ মে পর্যন্ত বাড়িয়েছিল তেলেঙ্গানা।দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯০ হাজার পেরিয়ে গেল। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯০ হাজার ৯২৭। আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ১২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে দেশে করোনায় মৃত্যু সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৮৭২। তবে এ পর্যন্ত মোট ৩৪ হাজারেরও বেশি মানুষ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন।

Baapi Lahiri Kulfi Song Teaser Out starring Yuvraaj Parashar and Sambhavana Seth*

0
In the grim times of pandemic, the artists worldwide are coming up with various ways to entertain the people. Here is a one more effort from some eminent artists to entertain and get a smile on the faces of people staying at home and maintaining social distancing. The Retro King Bappi Lahiri and the Folk Queen Rekha Rao come together for the first time, for the remix medley of the evergreen blockbuster Bhojpuri folk “kaise bani,kaise bani…” repackaged as “kulfi, kulfi, pyaar wali kulfi…” composed under the baton of maestro Nikhil Kamath. And when it is a jhataak dancing number of Bhojpuri folk, who better can give a tadka, than the dancing diva of Bhojpuri cinema Sambhavna Seth. Yes, she sizzles on this foot tapping number along with three hot suave gentlemen. The international awards wining Dunno Y Na Jaane Kyun fame actors Kapil Kaustubh Sharma and Yuvraaj Parashar do the Desi jhatkas with her, along with the UK based dancer actor Shahjahan. Yuvraaj Parashar, who is also an acclaimed Kathak dancer and the producer of this single says, “last year I produced 3 singles, mushy melodious Sajda, patriotic “Mehroo” Mehroo was my first as Director and the single got 12 international awards including best director and Ganpati devotional Atharva. Now I wanted to do something very massy for pan India.”This song which was shot before the world had gotten into lockdown, what Sambhavna has to say about her experience of doing it? “It was a great experience, working with the whole team and a wonderful opportunity to perform on this new version of the cult Bhojpuri folk song sung by none other than Bappi da!” On when asked, what made writer and director Kapil Kaustubh Sharma accept this song, “I love dancing. In the past, I did an international single with the Norwegian band The Hungry Hearts. Now, when I got the opportunity doing a Desi dhinchaak number, of course I had to do it! Nikhil Kamath, who is famous for his soul stirring retro songs like “koi fariyaad”, “tum bin jiya jaaye kaise”,“aisa sila diya” to catchy “meri pant bhi sexy” says, “I am confident that this song will