‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ জলসা মুভিজে প্রিমিয়ার

0
26

By Ramiz Ali Ahmed
দেব মানেই বাংলা ছবিতে প্রতিনিয়ত নতুনত্ব ভাবনা।বাংলা ছবিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন।এই করোনা পরিস্থিতিতে অভিনব উদ্যোগ নিল দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চারস। কচিকাঁচাদের কথা ভেবে দেব প্রযোজিত নতুন ছবি ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ মুক্তি পেতে চলেছে টেলিভিশনে।

প্রথমে ঠিক ছিল যে, এই ছবি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে। সেই মতো প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গিয়েছিল প্রযোজনা সংস্থার। কিন্তু দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউডের সম্ভাবনা প্রবল। তার ওপর এই সিনেমার অন্যতম টার্গেট অডিয়েন্স হল বাচ্চারা। যাদের সংক্রমণের আশঙ্কা বেশি বলে সতর্ক করে দিচ্ছেন চিকিৎসক থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞ সকলেই।

তাই দেবের প্রযোজনায় তৈরি ছবি ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ মুক্তি পেতে চলেছে টেলিভিশনের পর্দায়।
প্রযোজনা সংস্থার নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১০ অক্টোবর দুপুর ২টো নাগাদ জলসা মুভিজে প্রিমিয়ার হবে এই ছবির। তবে শুধু টেলিভিশনে নয়, একই সঙ্গে এই ছবিটি মুক্তি পাবে ডিজনি প্লাস হটস্টারেও।বাংলা ছবির ইতিহাসে এই প্রথম।এরকম একটা বিগ বাজেটের ছবি টেলিভিশনের পর্দায় মুক্তি পেতে চলেছে।ছবিটি ১০ অক্টোবর থেকে পরপর সাতদিন বিভিন্ন সময়ে ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’ জলসা মুভিজে দেখা যাবে।

ছবিতে হবুচন্দ্র রাজার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়। রানি কুসুমকুমারীর ভূমিকায় আছেন অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়। আর গবুচন্দ্র মন্ত্রীর ভূমিকায় রয়েছেন খরাজ মুখোপাধ্যায়। শুভাশিস মুখোপাধ্যায় রয়েছেন এক বৃদ্ধ মন্ত্রীর ভূমিকায়।দক্ষিণারঞ্জন মিত্র মজুমদারের ‘সরকার মশাইয়ের থলে’ এবং ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’র আদলে তৈরি হয়েছে এই ছবি। পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায়।গীতরচনা ও সঙ্গীত পরিচালনায় কবীর সুমন।

এই ছবির আরেক বড় আকর্ষণ হল ছবির শুটিং হয়েছে বাহুবলীর সেটে। রামোজি ফিল্ম সিটিতে তৈরি হওয়া সেই সেট দেখা যাবে বাংলা ছবিতে।

প্রযোজক দেব সাংবাদিক সম্মেলনে জানালেন, “শুধু বাংলার জন্য নয়, গোটা পৃথিবীজুড়ে বাংলা সিনেমার দশর্ক রয়েছেন, আর তাঁদের কথা মাথায় রেখেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া। আমার কাছে আমেরিকা-বাংলাদেশ, তাছাড়াও আরও অনেক জায়গা থেকে অনুরোধ এসেছে এই ছবিটা দেখার জন্য। গোড়া থেকেই ভেবেছিলাম এই সিনেমাটা বিশাল সংখ্যক দর্শকদের কাছে পৌঁছে দেব। যেহেতু এইধরনের ছবি ভীষণই বিরল বাংলা সিনেমায়। সিনেমাহলে ছবিটা দেখার মজা আলাদা। কিন্তু বাড়ি বাড়ি গোটা পরিবার একসঙ্গে বসে দেখুক, এটাই চাই।”


এদিন ছবির তৃতীয় গান “বোম্বাগড়ের জাতীয় সংগীত”ও আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ পায়।

ছবি:বিশ্বজিত সাহা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here