Anando Sangbad Live

দমফাটা হাসির ছবি ‘ব্যাপিকা বিদায়’ জলসা মুভিজ-এ থিয়েট্রিক্যাল সিনেমায়

By Ramiz Ali Ahmed

বিদীপ্তা চক্রবর্তী

‘অ্যান্টনি কবিয়াল’ দেখানো হয়েছে ১৫ নভেম্বর। জলসা মুভিজের ‘থিয়েট্রিক্যাল সিনেমা’ দর্শকদের পছন্দ হতে শুরু করেছে।কি এই থিয়েট্রিক্যাল সিনেমা?থিয়েট্রিক্যাল সিনেমা হল সিনেমা ও মঞ্চের অভিনয়ের যুগলবন্দি যা দেখতে পাবেন দর্শক টেলিভিশনের মাধ্যমে। এর আগে বাঙালি দর্শক এমন কিছু দেখার সুযোগ পাননি। প্রথম বার থিয়েটারের মজা উপভোগ করা যাবে ড্রইং রুমে বসেই।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের প্রযোজনা সংস্থা নিডাসের উদ্যোগে ১৫ নভেম্বর রাত ৮ টায় জলসা মুভিজ অরিজিনালসে দেখানো হল ‘অ্যান্টনি কবিয়াল’। চারদিনে চারটি মঞ্চ সফল নাটককে থিয়েট্রিকাল সিনেমার আকারে দেখানো হবে। বড় পর্দাতেও এগুলি সিনেমা হিসেবে আগে দেখা গিয়েছে। শুরুতেই রয়েছে ‘অ্যান্টনি কবিয়াল’, এর পর ‘ব্যাপিকা বিদায়’, ‘জয় মা কালী বোর্ডিং’ এবং ‘শ্রীমতি ভয়ংকরী’। এক ঘণ্টার থেকে একটু বেশি সময় ধরে চলবে এক একটি শো।
২২ নভেম্বর, রবিবার দুপুর ২টোয় দেখানো হবে রোমান্টিক কমেডি ‘ব্যাপিকা বিদায়’।পরিচালনা করেছেন কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়।

অনন্যা সেনগুপ্ত

অসম্ভব মজার ছবি ‘ব্যাপিকা বিদায়’।গল্পের মূল চরিত্রে রয়েছেন শ্বাশুড়ির চরিত্রে থাকা মিসেস পাকড়াশি। নারী স্বাধীনতায় বিশ্বাসী তিনি। তিনি স্বামীদের আঁচলে বেঁধে রাখাতেই নারী জীবনের সার্থকতা দেখেন। কিন্তু কপালগুণে তাঁর মেয়ে মিনি-ই পতিব্রতা!মিনি তাঁর স্বামী পুস্পবরণ রায়ের প্রেমে একেবারে অন্ধ ভক্ত।স্বামী অন্ত প্রাণ। মেয়ের বাড়িতে এসে সেই সব দেখে চক্ষুস্থির মিসেস পকড়াশির।মেয়েকে শোধরাতে কী করবেন মিসেস পাকড়াশি? তা জানতে হলে দেখতেই হবে ‘ব্যাপিকা বিদায়’।

প্রান্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়

১৯৮০ সালে ‘ব্যাপিকা বিদায়’ মুক্তি পেয়েছিল।পরিচালনা করেছিলেন অর্চন চক্রবর্তী।মিসেস পাকড়াশির চরিত্রে পর্দায় দাপিয়ে অভিনয় করেছিলেন গীতা দে। মিনি হয়েছিলেন সোমা দে। তাঁর স্বামী পুষ্পবরণ রায়ের চরিত্রে ছিলেন শমিত ভঞ্জ। জলসা মুভিজে এই তিন প্রধান চরিত্রে দেখা যাবে বিদীপ্তা চক্রবর্তী, অনন্যা সেনগুপ্ত আর প্রান্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *