ঢোলায় ঐতিহাসিক জনসভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

ঢোলায় ঐতিহাসিক জনসভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

নিজস্ব প্রতিনিধি:আজ দক্ষিণ ২৪ পরগনার ঢোলাহাট থানার মাঠে তৃণমূল কংগ্রেসের ঐতিহাসিক জনসভা হয়ে গেল।এই জনসভায় প্রধান বক্তা ছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিধায়কগণ,উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার প্রায় সমস্ত নেতা নেত্রী।


আজকের জনসভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তৃতায় সিংহভাগ জুড়েই ছিল ‘নারী অবমাননা’ প্রসঙ্গ।
বিজেপি মহিলাদের সম্মান করে না। তাই ওরা জয় সিয়ারাম বলে না। আসলে বিজেপি একটা মহিলা বিদ্বেষী দল। এই দলটা কোনওভাবেই মহিলাদের সম্মান করে না। এভাবেই দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলপির ঢোলার জনসভা থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন তৃণমূল নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।


তিনি এদিনের সভা থেকে বলেন, “ওরা নারীকে সম্মান দেয় না। উত্তরপ্রদেশের হাথরাসের ঘটনা সবার মনে আছে। ওরা মহিলাদের সম্মান করে না বলেই জয় শ্রীরাম বলে। জয় সিয়ারাম বলে না। জয় সিয়ারাম বলে সভা শুরু করে না। অমিত শাহ বলে গেছেন ভোটের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জয় শ্রীরাম বলবে। আমি বলছি আমি যদি বাপের ব্যাটা হই ,ভোট শেষ হওয়ার আগে ওদের দিয়ে জয় সিয়ারাম বলিয়ে ছাড়বো।” এরপর দিলীপ ঘোষের নাম উল্লেখ করে বলেন, “দিলীপ ঘোষ ইন্ডিয়া টুডের একটা প্রোগ্রামে বলেছেন, ” আমরা রামের চোদ্দ পুরুষকে চিনি, দুর্গার চোদ্দ পুরুষকে চিনি না। ভাবুন ওরা মহিলাদের কী চোখে দেখে। আরে দুর্গা দশপ্রহরণধারিণী। তিনি মহিষাসুর বধ করেছিলেন, দশভূজা হয়ে। এবার দিল্লির অসুরগুলো বধ হবে।”
এই কথার সুর ধরেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বলেন, “বিজেপির মমতা বিরোধিতা আসলে নারী বিদ্বেষ। ভারতে এখন একমাত্র মহিলা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই তাঁকে উৎখাত করতে হবে। এটাই বিজেপির উদ্দেশ্য। যারা মহিলাদের অসম্মান করে তাদের বিরুদ্ধে মহিলাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এই একই কারণে নেতাজির জন্মদিনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ওরা অপমান করা হয়েছে।”


এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ওরা বলছে ডাবল ইঞ্জিন সরকার হবে। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সিঙ্গল ইঞ্জিন সরকার। সেই সরকার উন্নয়নের সরকার। ডাবল ইঞ্জিন সরকার বানাবে বলে প্রধানমন্ত্রী সহ সারা দেশ একজন ৫ ফুট ২ ইঞ্চি মহিলার পেছনে উঠে পড়ে লেগেছে।” তিনি বলেন গাড়ির স্টিয়ারিং এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে।২৫০ আসন পাবে তৃনমূল।তিনি বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বলেন বিজেপি দুটো ডিজিট পার করতে পারবে না।

অমিত শাহ বৃহস্পতিবার কোচবিহার ও ঠাকুরনগরে বলেছেন, “মমতা ব্যানার্জীর সরকারকো উঠাকে ফেক দুঙ্গা।” এই প্রসঙ্গ উল্লেখ করে শনিবার ঢোলার জনসভা থেকে বলেন, “অমিত শাহ বলছেন সরকারকে তুলে ছুড়ে ফেলে দেবেন। আরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী ফ্লেক্স? যে তাঁকে তুলে ছুড়ে ফেলে দেবে? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের মানুষের হৃদয়ে বসে আছেন। সেখান থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরানো যাবে না।”

তিনি আরো বলেন উত্তরপ্রদেশের গুটখার থুথুতে বাংলার লোহায় জং ধরবে না।ভোটের পর প্যাক করে ফেরত পাঠাতে হবে।তিনি অমিত শাহ কে আক্রমণ করে বলেন,”আমার নাম নিতে ভয় কেন?ইয়ে ডর হামকো আচ্ছা লাগা।”

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *