ডানকুনি থিয়েটার ফেস্টিভ্যাল ২০২০-২১

0
270

কেকা মিত্র:নাট্যচর্চা এবং নাট্যোৎসব অনেক আগে থেকেই মানুষের জীবনের এক অন্যতম অংশ হয়ে উঠেছে। বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারীর এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে দাড়িয়েও শহর ছাড়িয়ে মফস্বল, গ্রাম সর্বত্র বিভিন্ন স্পেসে চলছে নাট্যচর্চা। হুগলী জেলার ডানকুনি র থিয়েটার শাইন নাট্যদলটি বহুদিন ধরে নাট্যচর্চা করে চলেছেন যার খ্যাতি আজ পশ্চিমবাংলা তথা ভারতবর্ষ ছাড়িয়ে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়েছে। এই নাট্যদলের উদ্যোগেই গত ১৭ই ডিসেম্বর ২০২০ থেকে আগামী ৩ রা জানুয়ারি ২০২১ কেন্দ্রীয় সরকারের সংস্কৃতি মন্ত্রক এর আর্থিক সহায়তা ও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের সাহায্যে আয়োজিত হলো ডানকুনি থিয়েটার ফেস্টিভ্যাল।
১৮ দিন যাবৎ এই ফেস্টিভ্যাল এ ছিলো ভারত তথা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের নাটক। ভার্চুয়াল, প্রসেনিয়াম, ইন্টিমেট – তিনটি পর্বে অনুষ্ঠিত হলো এই আন্তর্জাতিক নাট্যোসব। ভার্চুয়াল পর্বে ছিল লন্ডন, বাংলাদেশ, রাশিয়া, কোরিয়া, পাকিস্থান, স্পেন, ফ্রান্স ও ভারত – বিশ্বের আটটি দেশের উপস্থাপনা। এর পর ডানকুনি বিনোদিনী নাট্যমন্দির এ অনুষ্ঠিত হলো উৎসবের প্রসেনিয়াম পর্ব। এই পর্বে প্রথম দিনের প্রযোজনা বিহারের নাট্যদল ইম্যাজিনেশন এর ‘সুরজমুখি অউর হেমলেট’, দ্বিতীয় দিন ছিল আশীর্বাদ রঙ্গমন্ডল (বিহার) এর ‘মাকওয়ারে কা রাখওয়ালা’, তৃতীয় দিন ছিল মধ্যপ্রদেশ এর রঙ্গদূত নাট্যদলের ‘লাগি ছুটে না’। এই দিনের দ্বিতীয় প্রযোজনা ছিলো উত্তরপাড়া উত্তরায়ণ (পশ্চিমবঙ্গ) এর নাটক ‘অন্ত্যমিল’। ২৮শে ডিসেম্বর থেকে ১লা জানুয়ারি একটি ভার্চুয়াল সেমিনারের ও আয়োজন করা হলেছিলো। ‘নেশানাল ওয়েবিনার’ এ উপস্থিত ছিলেন ভারতের পাঁচজন স্বনামধন্য নাট্যব্যক্তিত্ব। আলোচনায় অংশ নেন দীপান সিভারামান, আশিষ গোস্বামী, সঞ্জয় উপাধ্যায়, সৌতি চক্রবর্তী, বিজয়কুমার নাইক। ২ রা ও ৩ রা জানুয়ারী পদাতিক লিটল থিয়েটার ২ – এ অনুষ্ঠিত হলো উৎসবের তৃতীয় অর্থাৎ ইন্টিমেট পর্ব। এই পর্বের প্রথম দিনে মঞ্চস্থ হলো বারাসাত কাল্পিক এর নাটক ‘Ward No.6’ ও বাকসা ব্রাত্য নাট্যজন এর নিবেদন ‘শেষ বিকেলের আলো’। দ্বিতীয় দিনের প্রযোজনা ছিলো আসানসোল চর্যাপদের ‘বিষছায়া’ ও সবুজ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের নিবেদন ‘বৃষ্টি’। এ বছর থিয়েটার শাইন নাট্যসম্মান প্রদান করা হয় বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব জয়ন্ত দাশগুপ্ত মহাশয় কে। ডানকুনি থিয়েটার ফেস্টিভ্যাল এর দ্বিতীয় পর্ব-মঞ্চ বিভাগ(Prosceium Phase)। উপস্থিত ছিলেন নাট্য গবেষক Dr. আশীষ গোস্বামী,রাজ্য সংগীত নাটক একাডেমির সচিব হৈমন্তী চ্যাটার্জি,Eastern Zonal Cultural Centre, ভারত সরকার আধিকারিক অভিজিৎ চ্যাটার্জী,হুগলী জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধক্ষ সুবীর মুখার্জী,বিশিষ্ট নাট্য ব্যক্তিত্ব শঙ্কর তালুকদার,উত্তরপাড়া কোতরং পৌরসভার প্রশাসক দিলীপ যাদব,কলকাতা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক পিনাকী রঞ্জন দাস প্রমুখ ব্যাক্তি বর্গ।এই পর্বে অনুষ্ঠিত হলো একাধিক রাজ্যের পাঁচটি ভাষার নাটক। সব মিলিয়ে সুন্দর ভাবে অনুষ্ঠিত হলো মোট ১৮ দিনের “থিয়েটার শাইন” আয়োজিত ডানকুনি থিয়েটার ফেস্টিভ্যাল ২০২০-২০২১

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here