জাতীয় চিকিৎসক দিবসে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা নিয়ে অনুসন্ধানের সান্ধ্যকালীন আলাপচারিতা

0
27



নিজস্ব প্রতিনিধি: কিিংকিংবদন্তি চিকিৎসক তথাপশ্চিমবঙ্গের দ্বিতীয় মুখ্যমন্ত্রী ডাক্তার বিধান চন্দ্র রায়ের জন্ম দীনকে স্মরণ করে 1991 থেকে পালিত হয়ে আসছে জাতীয় চিকিৎসক দিবস। বিশেষ এই দিনটিকে স্মরণ করতে অনুসন্ধানের পক্ষ থেকে আয়োজন করা হয়েছিল অনলাইনে এক বিশেষ সান্ধ্যকালীন আলাপচারিতা। স্বাভাবিকভাবেই বিষয় ছিল – স্বাস্থ্য ও শিক্ষা, বিশেষত ছাত্রসমাজের। এদিন আলাপচারিতার শুরুতে অতিমারিতে পরলোকগত সমস্ত মানুষের বিশেষ করে চিকিৎসকদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এর পর স্বাগত ভাষণে বিশিষ্ট বিজ্ঞানী মতিয়ার রহমান খান বলেন স্বাস্থ্য ও শিক্ষা নিয়ে আমাদের সবথেকে বেশি সচেতন হওয়া প্রয়োজন। এই কারণেই আজকের এই আলাপচারিতা।
আলাপচারিতা শুরু হয় খুদে পড়ুয়া ইহান আসের-এর সুললিত কন্ঠে রবীন্দ্র সংগীতের মাধ্যমে।
তারপর শুরু হয় প্রারম্ভিক বক্তৃতা। উপস্থিত ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এই কঠিন সময়ে কীভাবে এগোতে হবে তা বিস্তারিত ভাবে বলেন বিশিষ্ট সফটওয়্যার প্রফেশনাল ও সুলেখক প্রশান্ত ভট্টাচার্য। তিনি বলেন জ্ঞান অর্জন করার কোনো সময় সীমা নেই। সারা জীবনে তা কখনো থেমে থাকে না। অতিমারি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই সময়ে নিষ্ঠা ও সাহসিকতার সঙ্গে লড়াই করতে হবে। তবেই জিততে পারা যাবে। তিনি আরো বলেন ব্যর্থতা আমাদের জীবনের একটা অঙ্গ। সততার সঙ্গে লড়াই জারি থাকলে ব্যর্থতা সফলতায় রূপান্তরিত হবে। এরপর স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিয়ে বিশদ ভাবে বলেন কে পি সি মেডিকেল কলেজের বিশিষ্ট চিকিৎসক অধ্যাপক কুনাল কান্তি মজুমদার। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট গবেষক অনির্বাণ দত্ত, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শ্যামনারায়ন বন্দোপাধ্যায়, শশাঙ্ক শেখর মন্ডল, প্রধান শিক্ষক মানস হালদার, বিশিষ্ট শিক্ষক মোস্তফা হাবিব, গৌরাঙ্গ সরখেল, নায়ীমুল হক প্রমূখ। অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে এদিনের আলাপচারিতা সঞ্চালনা করেন বিশিষ্ট গবেষক ও শিক্ষক সাহাবুল ইসলাম। তিনি জানান আগামী দিনে ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে আরো এ ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে যা ছাত্র-ছাত্রীদের জন্যে খুবই কার্যকর। উপস্থিত ছাত্রছাত্রীরা তাদের অভিমত জানায়, সন্তোষ প্রকাশ করেন তাদের অভিভাবকেরাও। সবার শেষে সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করতে গিয়ে এই কাজে শিক্ষক মহাশয়দেরকে আরো বেশি করে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান বিজ্ঞানী মতিয়ার রহমান খান। তিনি বলেন ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য অনুসন্ধান আরও কীভাবে সহায়ক ভুমিকা নিতে পারে সে বিষয়ে গবেষণা চলছে, খুব শীঘ্রই আরো কিছু পরিকল্পনা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here