করোনা অতিমারীর সময়ে মধ্য কলকাতার পাঁচটি সংস্থার উদ্যোগে ডাঃ সুবীর গাঙ্গুলীর তত্ত্বাবধানে জরুরী পরিষেবা

    0
    26

    গোপাল দেবনাথ : করোনা অতিমারীর সময়ে মধ্য কলকাতার পাঁচটি সংস্থা উদ্যোগ নিয়েছেন এলাকার যে সকল পরিবার করোনা অতিমারীর কবলে পড়েছে তাদের মধ্যে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার। এই সকল মহতী কাজের  তত্ত্বাবধানে থাকবেন প্রবীণ ক্যান্সার চিকিৎসক ডাঃ সুবীর গাঙ্গুলী। যে সকল সংস্থা এই উদ্যোগের সাথে জড়িয়ে আছেন এবং ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে আছেন সেই সব সংস্থা হলো ফাইট ক্যান্সার, বৃন্দাবন মাতৃ মন্দির, হ্যাপি ক্লাব, মর্নিং ওয়াকার এসোসিয়েশন (বিদ্যাসাগর পার্ক) ও মিলন সমিতি (হৃষীকেশ পার্ক)। 
    আপনারা সকলেই জানেন যে করোনা সংক্রমনের দ্বিতীয় ঢেউতে সারা বিশ্বের সঙ্গে এই দেশের তথা এই রাজ্যের নাগরিকরাও করোনার প্রথম ঢেউ এর চেয়ে বেশি মাত্রায় আক্রান্ত হয়েছেন। এই প্রসঙ্গে মিলন সমিতির সভাপতি সঞ্জিত মিত্র এবং সম্পাদক উমাপতি দত্ত বলেন, আমাদের এলাকার বহু মানুষ শুধু আক্রান্তই নন বহু প্রিয় মানুষ আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। এই পরিস্থিতিতে এলাকার মানুষদের পাশে থাকতে এলাকার কিছু সংগঠন (ফাইট ক্যান্সার, বৃন্দাবন মাতৃ মন্দির, আমরা সবাই ও হ্যাপি ক্লাব, মর্নিং ওয়াকার এসোসিয়েশন (বিদ্যাসাগর পার্ক) ও মিলন সমিতি (হৃষীকেশ পার্ক) একত্রিত হয়ে স্বল্প খরচে কিছু পরিষেবা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে সক্ষম হয়েছি।
    যেমন কোভিড পরীক্ষা, অক্সিমিটারের ব্যবস্থা, ঔষধ সংগ্রহের ব্যবস্থা, টেলিমেডিসিনর ব্যবস্থা, অক্সিজেন কনসেনট্রেটার ব্যবস্থা, অ্যাম্বুলেন্সর ব্যবস্থা, বাড়িতে খাবার পৌঁছনোর ব্যবস্থা, সেফ হোম, অক্সিজেন পারলার, ঘর স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থা করা সেই সঙ্গে এই গ্রীষ্মকালীন রক্ত সংকটের মোকাবিলায় আগামী ১৩ জুন রবিবার সকাল ১০টায়, সুকিয়া স্ট্রিটে একটি রক্তদান শিবিরের আমরা আয়োজন করেছি। সকলের পক্ষ থেকে আপনাদের কাছে আমাদের একান্ত অনুরোধ সমস্ত পরিষেবাগুলি সঠিক রূপায়নে আমরা সকলকে সক্রিয় অংশগ্রহণ করতে এবং সাধ্যমত আর্থিক অনুদান দেওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here