Home Blog

প্রকাশ পেল কুশল চ্যাটার্জী’র “প্লিজ ডোন্ট গো”

0

নিজস্ব প্রতিবেদক:“ঢেঁকি স্বর্গে গেলেও ধান ভাঙে” আর বাঙালী ? সে ভূ-ব্রম্ভাণ্ডে যেখানেই যাক না কেন— মাছ, মিষ্টি আর মিউজিক ছাড়া বাঁচবে না!

আর সেইদলের একজন অন্যতম – কুশল চ্যাটার্জী পেশাগত কারণে আছেন বহুদিন মার্কিমুলুকে। কিন্তু গান লেখা, সুর করা আর গাওয়ার প্যাশন ধরে রেখেছেন! করে চলছেন নানাধরনের ক্রিয়েটিভ কাজ।

গত বছর এই উৎসবের মরসুমেই রিলিজ করেছিলেন একটি মিউজিক ভিডিও । এবছর কি ব্যাতিক্রম হতে পারে? এবারের নিবেদন – “প্লিজ ডোন্ট গো”, একটা সুরেলা গান আর ঝকঝকে ভিডিও আসছে এই মরশুমে।

গানের সুর, লেখা কুশলের নিজের, নিজেই গেয়েছেন। তবে এক রাশি গুণী মিউজিশিয়ান যুক্ত হয়েছেন এই কাজে । কুশলের নিজের ভাষায় “গান বাজনা ঠিক দল বেঁধে না করলে মজা নেই! “ গানের সঙ্গীত সঞ্চালনায় এবং যন্ত্রানুষঙ্গে আছেন বরুন দাশগুপ্ত, সুব্রত ব্যানার্জী। রেকর্ডিং, মাস্টারিং এবং এডিটিং করেছেন জয়ন্ত দাস। অন্য দিকে ভিডিওর দায়িত্ব একাই নিয়েছেন অম্লান দত্ত। কুশলের মতোই প্রবাসী এবং ক্রিয়েটিভ কাজে তাঁর প্যাশন, তবে উনি মনোনিবেশ করেছেন ভিডিও আর ফোটোগ্রাফিতে। এইজুটির গত বছরের কাজ ইউটিউবে রিলিজ হওয়ার পর বেশ সাড়া পড়েছিল । অম্লান বললেন – “এই কাজটায় আমরা প্রচুর পরিশ্রম করেছি । পুরো শুটিংটা হয়েছে আমেরিকার কিছু সিলেক্টেড লোকেশনে । আমার দুই মডেল সৌরভ এবং স্বাতীলেখার এটা একেবারে নতুন কাজ, কিন্তু কাজটিতে প্রাণ ঢেলে দিয়েছে দুজনে । কুশল জানালেন “গান আর ভিডিও – দুটোতেই একটু নতুনত্ব রাখছি আমরা । আশা করি দুটোই দর্শকদের মন টানবে।“

তাহলে আর দেরি নয় – ড্রিমস আনলিমিটেড ইউটিউব চ্যানেলে চোখ রাখুন, সাবস্ক্রাইব করুন । আপনাদের মতো আমরাও এই রিলিজটির অপেক্ষায়!

Merlin Group Hosts 3rd edition of “Merlin Er Sera Pujo 2021-Award”

0
  • Singers Soumitra Roy of Bhoomi , Siddhartha Sankar Ray, Sidhu of Cactus and actress Solanki Roy paid visit to the apartments on Mahasaptami, Mahashtami and Mahanavami

15th October, Kolkata: The passion, the emotion, and the spirit that oozes out of Kolkata during Durga Puja across Housing complexes captivated celebrity singer Soumitra Roy of Bhoomi, Siddhartha Shankar Roy, Sidhu of Cactus and actress Solanki Roy as they paid visits to apartments of Merlin.

Merlin Group organised a Puja Parikrama by these celebrities on three days of Durga Puja to adjudge the third edition of “Merlin Er Sera Pujo 2021 Sera Pujo Award”. actress Solanki Roy , Singers Soumitra Roy of Bhoomi, Siddhartha Shankar Ray, Sidhu of Cactus and roamed around 14 housing apartments of Merllinon Mahasaptami, Mahasthami and Mahanavami respectively.

Merlin Group, India’s leading real estate conglomerate instituted “Merlin er Sera Pujo”, a recognition to inspire the puja organizing committees across selected Housing apartments of Merlin in West Bengal in 2019. The aim was to recognize the spirit of celebration of Durga Puja in Housing apartments in an innovative way. This is the third year of the award. Merlin Warden Lakeview, Merlin Uttara, Merlin Maximus, Merlin Jabakusum, Merlin Iland, Merlin Legacy, Merlin Waterfront, Merlin Sapphire, Merln Twins, Merlin Laurel Garden, Merlin Crest, Merlin Vasundhara, Merlin Emerald participated in Merliner Sera Pujo award competition.

The sound of intense beats coming from the dhak mixed with the aroma of the dhunuchi lit , women Clad in the most beautiful attires, adorning the heaviest of jewels and thickest of bangles with sindoor and bindis on their temple and the quintessential taste of the traditional Bhog prepared with devotion, mesmerised the judges and officials of Merlin. The adherence to covid protocol and ubiquitous masks and sanitisers in all housing apartments of Merlin across Kolkata,Konnagar, Sodepur made them appreciate the preparedness of the housing apartments.

Shri Saket Mohta, Managing Director, Merlin Group, said , “ We at Merlin Group ,instituted this award to inspire residents across our housing apartments in Kolkata to celebrate Durga Puja, the biggest ever festival of Bengal with much grandeur and fanfare three years back. Even the pandemic could not dampen the spirit of the residents as they displayed celebration with adherence to covid protocol. We are thankful to Soumitra Roy, Siddhartha Shankar Roy and Solanki Roy for being present to adjudge the initiative by taking time off their busy schedule. We will take this initiatives on a bigger scale in future ”.

উৎসব শিরোপা ও উৎসব সুন্দরী

0

নিজস্ব প্রতিনিধি:শরতের মহাপূজা মানে আনন্দ আর উৎসব। আর সেই উৎসবে অঙ্গ হিসাবেই কলকাতার জনপ্রিয় প্রচার সংস্থা লাইমলাইট এবং বাংলার রাজনীতি পত্রিকার আয়োজনে এবং খবরের স্পন্দন পত্রিকার বিশেষ সহযোগিতায় উৎসব শিরোপা এবং উৎসব সুন্দরী প্রদান করা হলো কলকাতা সুরুচি সংঘ, মিলন সংঘ ,ভবানীপুর দুর্গোৎসব কমিটি, দূর্বার মহিলা দুর্গোৎসব কমিটি, দি রেফিউজ ,বেলঘড়িয়ার মানসবাগ, বরানগর লোল্যান্ড দুর্গোৎসব কমিটি সহ হুগলির ধনেখালির বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় পূজামণ্ডপ এই উৎসব শিরোপা সম্মানে ভূষিত হলো। ধনেখালির মুকুন্দপুর ভাতৃসংঘ, কানানদী ব্যবসায়ী সমিতি, খড়ুয়া দুর্গোৎসব কমিটি, রোহিয়া নবীন সংঘ ,নালিকুল শিমুলতলা আগমনী সংঘ উৎসব শিরোপা পুরস্কার লাভ করে। সেরার সেরা হয়েছে ধনেখালির নিউ বাস স্ট্যান্ড ব্যবসায়ী সমিতি। পুরস্কার প্রদানে উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক রোহিন ব্যানার্জি,প্রযোজক শুভাশিস সাহা,সংগীতশিল্পী ও অভিনেত্রী শীর্ষl রক্ষিত,অভিনেত্রী অর্পিতা পlল ,শিশুশিল্পী তর্পণ হাজরা,সংগীতশিল্পী কমলিকা ভট্টাচার্য এবং সাংবাদিক শংকর দত্ত,সাংবাদিক নৌশাদ মল্লিক ও প্রচার সচিব দেবব্রত রায় চৌধুরী সহ বিশিষ্টজনেরা।এছাড়া উৎসব সুন্দরী পুরস্কার পূজামণ্ডপ গুলিতে
প্রদান করেন বিচারকরা l

শারদীয়া দুর্গোৎসব উপলক্ষে বস্ত্র বিতরণ

0

নিজস্ব সংবাদদাতা : ধনিয়াখালি, হুগলী, গ্রামীন শিল্প নিকেতনের উদ্যোগে ও হিমাদ্রী স্পেসাইলিটি কেমিক্যালস কোম্পানীর সহযোগিতায় আসন্ন শারদীয়া দুর্গোৎসব উপলক্ষে গরিব দুঃখী অসহায় মহিলাদের বস্ত্রদান হয়ে গেল।

উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সম্পাদক নৌসাদ মল্লিক ও কোষাধক্ষ রাজেকা, পিয়ালী মল্লিক, রাজু ভট্টাচার্য্য, রুহুল আমিন মন্ডল, শেখ সেলিম মন্ডল প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠানটি ব্যবস্থাপনায় ছিলেন মুসকান ও আয়াত।

কলকাতা অঙ্গীকারের সামাজিক কাজ

0

গোপাল দেবনাথ:কলকাতা অঙ্গীকার তার সীমিত ক্ষমতা নিয়ে এই শারদ উৎসবে অন্তত কিছু মানুষের মুখে একটু হাসি ফোটানোর জন্য যে অন্ন-বস্ত্রের এক আগাম পরিকল্পনা করে ছিল আজ শুভ সপ্তমীতে এসে বলা যায় যে সকল শুভাকাঙ্খীর সহযোগিতায় সেই পরিকল্পনার বাস্তব রূপায়নে কলকাতা অঙ্গীকার মোটামুটি সফল।

কলকাতা অঙ্গীকার তার পূর্বপরিকল্পনা মত – ১) বারুইপুরের অনাথ আশ্রমের সমস্ত আবাসিকদের জন্য, ২) বাগবাজারের সারদা বিদ্যালয়ের সমস্ত শিশুদের জন্য, ৩) মূর্শিদাবাদের সহজপাঠ বিদ্যালয়ের সমস্ত শিশুদের জন্য, ৪) বাঁকুড়ার বর্ণপরিচয় বিদ্যালয়ের সমস্ত শিশুদের জন্য, ৫) বীরভূমের বিদ্যাসাগর বিদ্যাপিঠের সমস্ত ছাত্রছাত্রীর জন্য, ৬) জয়নগরের বিবেক সেবানিকেতনের সমস্ত আবাসিকদের জন্য ইতিমধ্যেই নতুন জামা-কাপড় পৌছে দিতে পেরেছে। শুধু শিশুদের জন্যই নয়, বাঁকুড়ার প্রত্যন্ত গ্রামের দ্বিশতাধিক গরীব বৃদ্ধবৃদ্ধার জন্য পরনের কাপড়ের বন্দোবস্ত করতেও সমর্থ হয়েছে। আর এই সবের মধ্যে হঠাৎ করে এসে পরা বন্যায়, মেদিনীপুরের বন্যাদূর্গত মানুষজনের জন্যও এপর্যন্ত দুবার তার সীমিত সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে হয়েছে।

শুভ চতূর্থী থেকে শুরু হয়েছে এই পরিকল্পনার দ্বিতীয় ভাগের রূপায়ন। শুভ চতূর্থীতে বাঁকুড়ার কালিদাসপুর গ্রামে সমস্ত শিশুদের সঙ্গে বহু বৃদ্ধবৃদ্ধার জন্যও আহারের আয়োজন করা হয়েছিল। শুভ পঞ্চমীতে বাগনানের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সঙ্কল্পের সঙ্গে যৌথ প্রচেষ্টায় সেখানকার ইটভাটার প্রায় ১০০ টি শিশুর হাতে কিছু খাবার আর নতুন জামা তুলে দেওয়া হয়েছে। শুভ ষষ্ঠীতে বাগবাজারের সারদা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীর জন্য ছিল কলকাতার কিছু প্রতিমা দর্শনের সঙ্গে দুপুরে আহারের ব্যবস্থা।
শুভ সপ্তমীতে বীরভূমের বিদ্যাসাগর বিদ্যাপিঠের সমস্ত ছাত্রছাত্রীর জন্য ছিল দুপুরে দারুন আহারের আয়োজন। পুজোর বাকি দিনগুলিও আশা করা যায় এমনই সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনামত সুন্দর ভাবেই কাটবে।

কলকাতা অঙ্গীকার তার সকল শুভাকাঙ্খীর কাছে কৃতজ্ঞ। একমাত্র তাদের আর্থিক-সাহায্য দান এবং নৈতিক সমর্থনই কলকাতা অঙ্গীকারকে তার পরিকল্পনার বাস্তব রূপায়নে অনুপ্রাণিত করেছে। কলকাতা অঙ্গীকার বিশ্বাস করে যে আপনাদের সাহায্য ছাড়া তার কোন স্বপ্নই সার্থক হবে না।

গৌরব চট্টোপাধ্যায়-সম্পাদক
অমরেশ রায় চৌধুরী-সহ সম্পাদক

কলকাতা অঙ্গীকারের সমস্ত সদস্যবৃন্দ

দুর্গানগর কাঞ্চনতলা গ্রামবাসীবৃন্দের পরিচালনায় প্রতিবারের মতো এবারেও সার্বজনীন দুর্গোৎসব হয়ে গেল

নিজস্ব প্রতিনিধি:দক্ষিণ ২৪ পরগনার ঢোলাহাট থানার অন্তর্গয় দক্ষিণ গঙ্গাধরপুর অঞ্চলের দুর্গানগর কাঞ্চনতলা গ্রামে দুর্গানগর কাঞ্চনতলা গ্রামবাসীবৃন্দের পরিচালনায় প্রতিবারের মতো এবারেও সার্বজনীন দুর্গোৎসব হয়ে গেল।৩৪তম বর্ষ পার করলো এবারের পুজো।

গ্রামের খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষরা মিলেই এই পুজোর আয়োজন করে থাকে প্রতিবছর।পাশাপাশি সামাজিক কাজকর্মও করে থাকে পুজো কমিটির সদস্যরা।এবছর গরিব মানুষদের জন্য ২৫০ টি শাড়ি ও ৫০টি কম্বল বিতরণ হয়।

পাশপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও ছিল।পুজো প্যান্ডেলে অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়েছিলেন দক্ষিণ গঙ্গাধরপুর অঞ্চল প্রধান শশাঙ্খ শেখর হালদার, ডাঃ আহাম্মাদুল্লা পাইক,ডাঃ কমল কৃষ্ণ হালদার, রাজকুমার হালদার, দুলাল চন্দ্র হালদার,হারান হালদার,অরূপ হালদার,প্রবীর হালদার, অরবিন্দ হালদার প্রমুখ।

পুজো কমিটির পক্ষ থেকে কর্ণধার হালদার,অমল হালদার, রঞ্জন হালদার গ্রামের মানুষদের এবং অতিথিদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

Once again Nuvoco brings Durga Puja to Devotees with Virtual Pandal Hopping

0

Kolkata, 13 October 2021: Following up on its incredibly popular initiative from last year, leading building materials company Nuvoco Vistas Corp. Ltd., is back with its virtual Durga Puja pandal hopping experience for devotees, commencing from October 11, 2021. With COVID-19 restrictions still in effect, this online experience allows people to virtually ‘visit’ the famous pandals in Kolkata. Devotees can log on to https://nuvocopandalhopping.com/ for a 360-degree walkthrough of the top 30 Durga Puja pandals in the city as well as a captivating image gallery of 20 pandals from other parts of West Bengal and 10 overseas venues. They will be able to witness the pomp and glory, prayer services, magnificent idols, spellbinding artistic displays, and popular lightings of these venues in real time. The website is available in both English and Bengali languages.
Every year lakhs of devotees congregate in Kolkata to celebrate Durga Puja. The usual practice is to move from one site to another to see the different idols, pandals, and art on display. However, after the successful online celebration last year and continued COVID-19 restrictions on the entry of people to puja venues, Nuvoco once again brings the virtual pandal hopping experience that will allow devotees to experience their favorite festive activity virtually. From the grand facade of the lavish pandals to the most intricate detailing of the artistry – everything will be viewable, literally at your fingertips.
This year, Nuvoco has hiked up the scale of its celebration and spending by providing a 360-degree walkthrough to the top Durga Puja pandals in Kolkata and elsewhere chosen as per most-visited and popular pandals in the last few years. The company will be running a branding campaign at the pandals for ‘Best Dressed’ and ‘Best Pandals’. The viewers will get a chance to vote for their favorite Pandal and the top 3 pandals with the most votes will be awarded with ₹40K, ₹30K, and ₹20K. The company has also arranged free e-pass for the vaccinated users.
Sharing her views on the platform, Ms. Madhumita Basu, Chief Marketing, Innovation and Strategy Officer, said, “As a leading cement company in the East, we feel a deep connection with the people and its culture. Durga Puja has always been a special time for us and given that this is our major market offering leading brands like Concreto, Double Bull, and Duraguard WaterSeal, it gives us an opportunity to connect with our customers through this virtual pandal hopping initiative. It proved to be a great success on its launch as people from all over the world logged in to witness the puja ceremonies in real-time. During these times of COVID, such initiatives help in ensuring the safety of people and helping devotees to visit the pandal while avoiding any mass congregation.”
About Nuvoco: Nuvoco Vistas Corp. Ltd. is a leading manufacturer and retailer of building materials in India with a vision to build a safer, smarter and more sustainable world. The company started operations in India in 1999 via acquisitions, and since then it has emerged as one of the major players in India. Today it offers a diversified business portfolio under three business segments, namely, Cement, Ready-Mix Concrete (RMX) and Modern Building Materials (MBM). Nuvoco is one of the top cement manufacturers in India, and the leading player in the East following the acquisition of Nu Vista Limited (formerly Emami Cement Limited); offering high performance, premium, blended cement variants like Concreto, Duraguard, Nirmax and Infracem. Its MBM product range, under the Zero M brand, comprises construction chemicals, wall fill solutions, and cover blocks. Nuvoco’s RMX business has a pan-India presence offering specialised products like Artiste and InstaMix being proud contributors to landmark projects like Lodha World One, Amritsar Entry Gate, and the Metros (Delhi, Jaipur, Noida and Mumbai). Through its NABL-accredited Construction Development and Innovation Centre (CDIC) based in Mumbai, Nuvoco identifies latent gaps in the industry and offers customised solutions to its customers. Guided by the enduring principles of safety for its employees and responsibility for the community and environment; the company is charting its course to shape a new world. (www.nuvoco.com).

Netflix With Ava Films & Entertainment bring Bollywood Mafiaa to Dubai led by John Abraham

0

✍️By Special Correspondent


Dubai will be witnessing the glitz and glamour of Bollywood this week as the Team of Mafia the movie comes to town to make a special announcements and attend a press conference of their upcoming movie.
Another very exciting news is that the Ceo of Netflix Ted Sarandos , Producer Arjun Singh and Director Santosh Maskey and James Francis Cameron will also be seen with the star cast on the 19th of October 2021.
To catch a glimpse of your favorite stars we can tell you multi star cast will be heading to the Press conference at ST. REGIS HOTEL DUBAI and will also be attending a Gala dinner at the Meydan.

পুজোর গান ‘এলো যে মা’ মানুষের মন কাড়ছে

0

নিজস্ব প্রতিনিধি:এই মিউজিক ভিডিওতে যারা যারা আছেন:
স্টার জলসার ‘বোঝে না সে বোঝে না’ ও জি বাংলার ‘রিমলী’ সিরিয়াল খ্যাত উজানী দাশগুপ্ত, সেবন্তি দাস, ইন্দ্রজিত দাস ,আকাশ ভৌমিক, আলেখ্য সেনগুপ্ত ,অভিষেক ভট্টাচার্য, আকাশ পাল, সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়, নীলাদ্রি সাহা, রিথুন চ্যাটার্জী।

২. যাদের দ্বারা নির্মিত:

নেপথ্য শিল্পী: সেবন্তি দাস, ইন্দ্রজিত দাস, আকাশ ভৌমিক।

কথা ও সুর: আলেখ্য সেনগুপ্ত।

সংগীত আয়োজনকারী: অভিষেক ভট্টাচার্য।

গল্প এবং পরিচালনা: আকাশ পাল

চিত্রগ্রহণ: নীলাদ্রি সাহা

সম্পাদনা এবং চিত্র সংশোধন: সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

৩. অভিনেতা এবং অন্যান্য কলাকুশলীরা:

মুখ্য অভিনেতা ও অভিনেত্রী: স্টার জলসার ‘বোঝে না সে বোঝে না’ ও জি বাংলার ‘রিমলী’ ধারাবাহিক খ্যাত উজানী দাশগুপ্ত।

সহ শিল্পীগন: সেবন্তি দাস, ইন্দ্রজিত দাস ,আকাশ ভৌমিক, আলেখ্য সেনগুপ্ত ,অভিষেক ভট্টাচার্য।

অন্যান্য কলাকুশলীরা: আকাশ পাল, সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়, নীলাদ্রি সাহা , রিথুন চ্যাটার্জি।

৪.প্রযোজনা: সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

গণ মাধ্যম প্রচার:
রানা বসু ঠাকুর (জে এল টি)

মূল ভাবনা এবং অনুপ্রেরণা: মা দুর্গার পূজা সমস্ত নেতিবাচক ভাবনাকে মুছে ফেলে সত্যের দিকে এগিয়ে যাওয়ার এক প্রতীক! এই উৎসব মহিষাসুরকে বধ করে শুভশক্তির উন্মেষ কেও বোঝায়। এই শুভশক্তির বন্ধন এর সাথে সাথে আসুন মনকে মাতিয়ে তুলি মনমুগ্ধকর এক সঙ্গীতের আবহে। আমরা সিনে স্টুডিও বাংলার প্রত্যেকটি সদস্য আশা করব আমাদের এই পরিবেশন আপনাদের সাহায্যে ,আপনাদের আশীর্বাদে হয়ে উঠবে অনন্য।
সুস্থ থাকবেন ,ভালো থাকবেন। মায়ের কাছে প্রার্থনা করি সকলেই সমস্ত দুঃখ কষ্ট ধুয়ে মুছে যাক প্রত্যেকে পাক একটা সুন্দর জীবন।

পুজো তে অনেক গান বের হয়,এই ভিডিও তে রয়েছে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস আর অনবদ্য ক্যামেরার কাজ ও সম্পাদনা।আলেখ্য সেনগুপ্তের কথায় ও সুরে দেবীর আগমনী খুব সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তুলেছে পরিচালক আকাশ পাল, চিত্রগ্রাহক নিলাদ্রী সাহা ও প্রযোজনায় সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় এর সিনে স্টুডিওর টিম।

শিশুদের স্বর্গোদ্যান বিধান শিশু উদ্যানের দুর্গা পুজো এই বছর ১৪ তম বর্ষে পদার্পন করলো

0

গোপাল দেবনাথ : কলকাতা, ১৪ অক্টোবর ২০২১। প্রয়াত জননেতা অতুল্য ঘোষ এর কল্পনা দ্বারা সৃষ্ট শিশুদের জন্য স্বপ্নের উদ্যান “বিধান শিশু উদ্যানের দুর্গা পুজো এই বছর ১৪ তম বর্ষে পদার্পন করলো। পুজোর পরিবেশের সাথে নজরকাড়া দুর্গা মায়ের মৃন্ময়ী মূর্তি। সদস্যদের সারা বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমের সুফল হলো ‘দুর্গা মা’ ই যেন এই উদ্যানের এক শিশু সদস্যা। এই পুজো প্রসঙ্গে এই উদ্যানের সম্পাদক গৌতম তালুকদার জানালেন, এই পুজোতে একবার যোগদান করলে পারিবারিক পুজোর স্বাদ পাওয়া যাবে বলেই আমার বিশ্বাস। আমাদের সারাবছরের কর্মকাণ্ড কেবলমাত্র দুর্গা পুজোর মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। গত ৮ অক্টোবর দুর্গাপুজোর তৃতীয়ায় আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের দিনে এই উদ্যানের শিক্ষার্থী শিশু কিশোর ও কিশোরীরা অত্যন্ত নিপুণভাবে নাচ, গান, আবৃত্তি ও কবিতা পাঠ করে উপস্থিত দর্শকদের মুগ্ধ করে দেয়। এই পুজোকে কেন্দ্র করে এই দিনই ২৯ জন সম্মানীয় শিক্ষক ও শিক্ষিকাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এই বছর যে হেতু করোনা অতিমারী প্রভাবের জন্য শিক্ষক দিবসে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা সম্ভবপর হয়নি সেই কারণ বশতঃ এই উদ্বোধনের দিনটি কে বেছে নেওয়া হয় শিক্ষকদের সন্মান জানানোর জন্য। এ ছাড়াও আমরা করোনা কালীন সময়ে অঙ্কন বিভাগের ৩০০জন প্রতিযোগীদের বাড়িতে বসেই ছবি এঁকে তাদের অভিবাবকদের হাত দিয়ে আমাদের দপ্তরে পাঠাতে বলে ছিলাম এবং সেই ছবির মধ্যে থেকে ৯০ টি ছবি চূড়ান্ত পর্যায়ে বাছাই করে বিভিন্ন বিভাগে বিজয়ীদের পুরষ্কৃত করা হয়। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার স্বরূপ বই তুলে দেওয়া হয়। গত সপ্তমীর দিন থেকে প্রতিদিন শিক্ষার্থীরা তাদের বাবা ও মায়ের সাথে এসে ভোগ প্রসাদ একসাথে বসে খাচ্ছেন। দুই বেলাতেই ভোগ খাওয়ার ব্যবস্থা থাকছে। আজ নবমীর দিনে নানা পদ সহযোগে আমিষ খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে এই উদ্যান চত্বরে। আজ বহু বিশিষ্ট অতিথি সহ কয়েকশো সাধারণ মানুষ একই সাথে আমিষ খাবার খাবেন। বহু বছর ধরেই এই নবমীর দিনে আমাদের এই পরম্পরা জারি আছে। আগামীকাল মহা দশমীর দিনে সন্ধ্যাবেলায় আমাদের বিধান শিশু উদ্যানের জলাশয়ে দেবীর মৃন্ময়ী মূর্তির বিসর্জন দেওয়া হবে। তারপর প্রনাম কোলাকুলি ও মিষ্টিমুখ।